অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য নতুন অপারেটিং সিস্টেম আনছে গুগল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০২৪, ১৪:০১

ফিউশা একটি ওপেন-সোর্সভিত্তিক অপারেটিং সিস্টেম। ছবি: গিজচিনাঅ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য ‘ফিউশা’ নামের অপারেটিং সিস্টেম আনছে গুগল। তবে এটি পুরোপুরি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমকে প্রতিস্থাপন করবে না। বরং এটি ভার্চুয়াল সিস্টেমে হিসেবে ব্যবহৃত হবে বলে ধারণা করছে বিভিন্ন প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট। 

২০১৬ সাল থেকেই ফিউশা অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে কাজ করছে গুগল। তবে ২০২১ সালে গুগলের পণ্য ‘নেস্ট হাব’ এ শুধু এটি ব্যবহার করা হয়। সেসময় বিভিন্ন প্রযুক্তি ওয়েবসাইট বলেছিল, স্মার্টফোন ও স্মার্ট ঘড়িসহ সব ধরনের স্মার্ট ডিভাইসের জন্য অপারেটিং সিস্টেমটি তৈরি করা হবে। তবে এখন পর্যন্ত এটি ঘটেনি। তবে অ্যান্ড্রয়েডকে এখনই প্রতিস্থাপন করবে না ফিউশা। অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ভার্চুয়াল মেশিন হিসেবে এটি ব্যবহার করতে পারে। 

ফিউশা একটি ওপেন-সোর্সভিত্তিক অপারেটিং সিস্টেম। গুগলের লিনাক্স-ভিত্তিক অপারেটিং সিস্টেম ক্রোমওএস ও অ্যান্ড্রয়েড এর বিপরীতে জিরকন নামে একটি কাস্টম মাইক্রোকার্নেলের ওপর ভিত্তি তৈরি করা হয়েছে ফিউশা। সাধারণ কার্নেল অপারেটিং সিস্টেমের তুলনায় মাইক্রোকার্নেল আরও কার্যকারী। জিরকনে তুলনামূলক কম কোডও ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে সিস্টেমটির নিরাপত্তা আরও জোরদার হবে। 

গুগল ‘মাইক্রোফিউশা’ নামে একটি নতুন প্রকল্পে কাজ করছে বলে জানা গেছে। ফিউশাকে ভার্চুয়ালাইজেশনের মাধ্যমে বিভিন্ন ডিভাইসে ব্যবহার করা যাবে। ভার্চুয়ালাইজেশন একটি ডিভাইসের একটি ভার্চুয়াল সংস্করণ তৈরি করে যা একটি পৃথক কম্পিউটিং পরিবেশে চলে। সিস্টেমের বাকি অংশ থেকে আলাদা ভার্চুয়াল মেশিন। তাই প্রাথমিক অপারেটিং সিস্টেমে ও ভার্চুয়াল মেশিনের ভেতরে চলমান প্রোগ্রামগুলো একে অপরের সঙ্গে হস্তক্ষেপ করতে পারে না। 

মাইক্রোফিউশা QEMU ও pKVM এর মতো ভার্চুয়াল প্রোগ্রামের ওপর ভিত্তি করে চলবে। পিকেভিএম গুগল তৈরি করে। একটি বিচ্ছিন্ন পরিবেশে নিরাপদে কাজ চালাতে পারে এ জন্য স্তরযুক্ত সুরক্ষা পদ্ধতি পিকেভিএম—এর সঙ্গে যুক্ত করা হয়। এমনকি কাজগুলো ভালো মতো সম্পন্ন করার জন্য ‘মাইক্রোড্রয়েড’ নামে অ্যান্ড্রয়েডের আরেক সংস্করণ তৈরি করেছে কোম্পানিটি। 

মাইক্রোড্রয়েডের মতো একইভাবে কাজ করতে পারে মাইক্রোফিউশা। সহজ কথায়, এটি এমন কাজগুলো করার চালানোর জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে, যেগুলো নিরাপদে সম্পন্ন করা প্রয়োজন। 
 

এবিএন/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ