আজকের শিরোনাম :

দ্বিতীয় সেশনে ব্যাট করছে টালমাটাল বাংলাদেশ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৪:০৯ | আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৭:৫৩

চট্টগ্রামে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এবারের আসরে নিজেদের অভিযান শুরু করল টিম বাংলাদেশ। দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হলেও ব্যাটিং বিপর্যয়ে থেকে প্রথম সেশন শেষ করল স্বাগতিকেরা। এমন পরিস্থিতিতে টালমাটাল অবস্থা নিয়ে দ্বিতীয় সেশনে ব্যাট করতে নেমেছে টাইগাররা।

মধ্যাহৃভোজ থেকে ফেরার পর এখনো উইকেটে আছেন মুশফিকুর রহিম (১৪) ও লিটন দাস (২১)।

সাদা পোশাকে দুই ওপেনার সাইফ হাসান এবং সাদমান ইসলাম সতর্ক ব্যাটিংয়ে দিন শুরু করলেও মাত্র ৫০ রান তোলার আগেই ৪ উইকেট খোয়ায় টাইগাররা। সাইফ-সাদমানকে হারিয়ে শুরুতেই বিপাকে থাকা বাংলাদেশ এরপর অধিনায়ক মুমিনুল হক এবং নাজমুল হাসান শান্তকে হারায়।

দলের ৪৯ রানের সময় ধরে খেলতে থাকা শান্ত ১৪ রান করে ফাহিম আশরাফের বলে আউট হন। তার করা লো শটকে দুর্দান্তভাবে ক্যাচ বানিয়ে তা ধরে ফেলেন সাজিদ খান।

এমন পরিস্থিতিতে ব্যাট করতে নেমেছেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। বাংলাদেশের বহু ম্যাচে এমন চাপ সামাল দেওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে ৭৬তম টেস্ট খেলতে নামা মুশফিকের। আজও তেমন একটি চ্যালেঞ্জ সামনে মুশি।

এর আগে তৃতীয় উইকেটে নাজমুলের সঙ্গে ৪৩ বলে ১৪ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন মুমিনুল। কিন্তু ১৬তম ওভারে স্পিনার সাজিদ খানের প্রথম বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন মুমিনুল। ১৯ বলে ৬ রান করে ফিরলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। বাংলাদেশ তখন ১৫.১ ওভারে ৩ উইকেটে ৪৭।

এ দিকে দলীয় ১৯ রানে বিদায় নেন সাইফ। শাহীন শাহ আফ্রিদির বলে শর্ট ফাইন লেগে আবিদ আলীর হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। অবশ্য বলটি সাইফের ব্যাট ছুঁয়ে কাঁধে লেগে ওপরে যায়। এরপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই ক্যাচ লুফে নেন আবিদ। ব্যক্তিগত ১৪ রানে সাজঘরে ফিরেছেন তরুণ এ ওপেনার।

অপর দিকে শাহিন শাহ আফ্রিদির প্রথম ওভারেই সাদমানের ব্যাটের কোনায় লেগে বল চলে যায় পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ রিজওয়ানের হাতে। কিন্তু পাকিস্তানি পেসার, উইকেটরক্ষক বা দলের ফিল্ডাররা কেউই সেটা টের পায়নি। ফলে ক্যাচের আপিলও করেননি। পরবর্তী সময়ে টিভি রিপ্লাইয়ে দেখা যায় বলটি সাদমানের ব্যাট ঘেঁষে সরাসরি চলে যায় উইকেট রক্ষকের হাতে। সে যাত্রায় বেঁচে যান সাদমান। নয়তো রানের থাতা না খুলেই তাকে ফিরতে হতো প্যাভিলিয়নে।

এখানেই শেষ নয়। সাদমান জীবন পেয়েছেন আরও একবার। হাসান আলীর চতুর্থ ওভারে সরাসরি একটি ডেলিভারি সাদমানের প্যাডে আঘাত করে। আউটের আপিল জানালে আম্পায়ার সেটা নাকচ করে দিলে পাকিস্তানের সুযোগ ছিল রিভিউ গ্রহণ করার। কিন্তু হাসান ও বাবর সিদ্ধান্ত নেন রিভিউ না নেওয়ার। এরপর টিভি রিপ্লাইয়ে দেখা যায় সাদমানের প্যাডে লাগা ডেলিভারিটি সরাসরি স্ট্যাম্পে আঘাত হানে। তার মানে রিভিউ নিলেই তার উইকেটের পতন ঘটতো। পাকিস্তানি অধিনায়ক ও বোলারের ভুল সিদ্ধান্তে এ যাত্রায়ও বেঁচে ফেরেন সাদমান।

কিন্তু দুইবার বড় সুযোগ পেয়েও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি এই ব্যাটসম্যান। সেই হাসান আলির বলেই ইনিংসের ৮ম ওভারে লেগ বিফরের ফাঁদে পড়ে আউট হয়ে ফিরেছেন তিনি। আউট হওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে এসেছে ১৪ রান।

পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচটি দিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় দলে অভিষেক হলো এ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী রাব্বির। বাংলাদেশের ৯৮তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হলো ইয়াসিরের। টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হকের কাছ থেকে টেস্ট ক্যাপ পরেন দীর্ঘদিন ধরে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা রাব্বি।

রাব্বির সঙ্গে পাকিস্তানের বিপক্ষে মাহমুদুল হাসানকেও দেখার অপেক্ষায় ছিল ক্রিকেট ভক্তরা। যদিও শেষ পর্যন্ত সুযোগ পাননি তিনি। সাইফ হাসানের ওপর আস্থা রেখেছে টিম ম্যানেজম্যান্ট।

চট্টগ্রামে দুই পেসার এবং দুই স্পিনার নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। পেস বিভাগে আবু জায়েদ চৌধুরির সঙ্গী ইবাদত হোসেন। স্পিনে তাইজুল ইসলামের সঙ্গী মেহেদি হাসান মিরাজ।

অন্য দিকে গতকালই ১২ জনের দল ঘোষণা করে দিয়েছিল পাকিস্তান। সেখান থেকে বাদ পড়েছেন কেবল ইমাম-উল-হক। আবিদ আলীর সঙ্গে পাকিস্তানের ইনিংস উদ্বোধন করবেন আব্দুল্লাহ শফিক।

উল্লেখ্য, শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৩৩ ওভার শেষ বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৮৮ রান।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm