খালেদার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে ২৬৮৪ চিকিৎসকের বিবৃতি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ নভেম্বর ২০২১, ২১:০৫

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে নিয়ে সুচিকিৎসার দাবি জানিয়েছেন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) ২ হাজার ৬৮৪ চিকিৎসক। শনিবার (২৭ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান তারা।

বিবৃতিতে তারা বলেন, পছন্দ মতো চিকিৎসা নেওয়ার অধিকার থেকে খালেদা জিয়া ক্রমাগতভাবে বঞ্চিত। বিএনপি নেত্রী কারাগারে যাওয়ার পর থেকেই চিকিৎসা বঞ্চিত হওয়ার ফলশ্রুতিতে আজ এ ভয়াবহ শারীরিক জটিলতার মধ্যে পড়েছে।

এতে বলা হয়, একটি পরিত্যক্ত কারাগারে একক ব্যক্তি হিসেবে রেখে খালেদা জিয়ার মানসিক শক্তি ভেঙে দেওয়ারও অপচেষ্টা করা হয়েছে। ইতোপূর্বে ড্যাবসহ বিএনপি এবং এর বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে বারবার তার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে বিদেশে পাঠানোর দাবি জানানো হয়েছে। কিন্তু সরকার কোনো কর্ণপাত করেনি। এমনকি পরিবারের লিখিত আবেদনেরও কোনো গুরুত্ব দেয়নি সরকার। প্রতিহিংসার বশবতী হয়ে আইনের অপব্যাখ্যা দিয়ে বারবার ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। গত তিন বছরে বয়স্ক এই নারী সুচিকিৎসার অভাবে মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে।

তারা আরও বলেন, চিকিৎসা ব্যবস্থায় বাংলাদেশ ক্রমবর্ধমানভাবে এগিয়ে গেলেও এখনও বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা বিদ্যমান। যার ফলশ্রুতিতে এদেশের চিকিৎসকদের আপ্রাণ চেষ্টা সত্ত্বেও খালেদা জিয়া আশানুরূপ আরোগ্য লাভের পরিবর্তে ধীরে ধীরে অন্তিম পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। এমতাবস্থায় চিকিৎসক হিসেবে আমাদের আকুল আহ্বান জরুরি ভিত্তিতে তার মুক্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিদেশে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা হোক। অন্যথায় চিকিৎসার অভাবে খালেদা জিয়ার কিছু হলে তার দায় দায়িত্ব সরকারের বর্তমান নীতিনির্ধারকদের বহন করতে হবে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়া করোনা পরবর্তী জটিলতা, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, রিউমোটয়েড আর্থাইটিস, লিভার, কিডনি ও হার্টের বিভিন্ন জটিলতা নিয়ে গত ১৩ নভেম্বর থেকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। তিনি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন। এমন পরিস্থিতিতে বিএনপি নেত্রীর সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে তাকে স্থায়ী মুক্তি দিয়ে বিদেশে পাঠানোর জোর দাবি জানান এ চিকিৎসকরা।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm