ঈদের আগেই প্রধানমন্ত্রীর ঈদ অনুদান বিতরণের দাবি ডিইউজের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০২১, ১৯:০৬

করোনাকালে পরিবার নিয়ে সাংবাদিকদের ঈদ উদ্‌যাপনের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ অনুদান সংক্রান্ত চিঠি দুই মাসেরও বেশি সময় সদস্যদের মাঝে গোপন রাখায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) নির্বাহী পরিষদ। ঈদের আগেই প্রধানমন্ত্রীর ঈদ অনুদান বিতরণের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংগঠনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত নির্বাহী পরিষদের সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর এই ক্ষোভ ও নিন্দা জানানো হয়।

সভায় জানানো হয়, গত ৪ মে করোনা আক্রান্ত সাংবাদিকদের চিকিৎসা সহায়তা এবং পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদ উদ্‌যাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বিএফইউজের সভাপতিকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়। কিন্তু উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে, দীর্ঘদিন পার হয়ে গেলেও তা ডিইউজেসহ বিএফইউজের আওতাধীন কোনো ইউনিয়নকে অবহিত করা হয়নি। এ সংক্রান্ত অনুদান বিতরণের কোনো সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়নি।

সাম্প্রতিককালে ফেসবুকে বিষয়টি ভাইরাল হলে প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগ নিয়ে নানামহল থেকে বিভ্রান্তি ও ধূম্রজাল সৃষ্টি করা হয়। প্রায় দুই মাস আগে টাকা বরাদ্দ হওয়ার পরেও এখন পর্যন্ত ডিইউজে-র সদস্যরা ঈদ অনুদান থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। তাই ঈদুল আজহার আগেই ডিইউজের সদস্যদের মাঝে ঈদ অনুদান বিতরণের জন্যে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট ও বিএফইউজের প্রতি সভা থেকে জোরালো দাবি জানানো হয়।

ডিইউজের এই সভায় ১০ কোটি টাকা সাংবাদিকদের করোনা দুর্যোগের সময় অনুদান দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আবারও কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। এ ছাড়া সভায় জানানো হয়- প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চিঠি দেওয়ার পর বিএফইউজের নির্বাহী পরিষদের দুই দফা অনলাইন সভা এবং বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের একাধিক সভা অনুষ্ঠিত হলেও বিষয়টি অজ্ঞাত কারণে গোপন রাখায় ডিইউজেসহ অন্য ইউনিয়নের সদস্যরা বঞ্চিত হয়েছেন।

সভার অপর এক প্রস্তাবে বিএফইউজের কল্যাণ তহবিলে গচ্ছিত অর্থ এই আপত্কালীন সময়ে সদস্যদের জন্য সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করার দাবি জানানো হয়।

এছাড়া, ঈদের আগে সাংবাদিকদের বেতন-ভাতা ও বকেয়া পরিশোধের জন্য গণমাধ্যম মালিকদের প্রতি দাবি জানানো হয়।

ডিইউজে সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপুর সঞ্চালনায় এ সভায় অংশ নেন, সহসভাপতি এমএ কুদ্দুস, যুগ্ম সম্পাদক খায়রুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক এ জিহাদুর রহমান জিহাদ, প্রচার সম্পাদক আছাদুজ্জামান, ক্রীড়া সম্পাদক দুলাল খান, জনকল্যাণ সম্পাদক সোহেলী চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য সুরাইয়া অনু, সাকিলা পারভীন, শাহনাজ পারভীন এলিস, রাজু হামিদ, ইব্রাহীম খলিল খোকন, সলিমুল্লাহ সেলিম, অজিত কুমার মহলদার, আবু জাফর সূর্য, নাগরিক টিভির ইউনিট প্রধান শাহনাজ শারমিন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ