বাসচাপায় কিশোরের মৃত্যু

চালকের সিটে ছিলেন হেলপার, আরেক বাসের চালক মাদকাসক্ত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:০০

রাজধানীর মগবাজার মোড়ে দুই বাসের চাপায় কিশোর নিহতের ঘটনায় জড়িত দুই বাসের চালকের আসনে যারা ছিলেন, তাদের একজন মাদক মামলার আসামি। অপরজন ছিলেন চালকের সহকারী। আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের দুই চালককে গ্রেপ্তারের পর এসব তথ্য জানায় র‌্যাব।

আজ বুধবার (২৬ জানুয়ারি) রাজধানীর কারওয়ান বাজারের মিডিয়া সেন্টারে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মলনে র‌্যাব জানায়, চালক মো. মনির হোসেন ও মো. ইমরান হোসেনকে মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) রাজধানীর পল্টন ও মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, আজমেরী পরিবহনের একটি বাস চালাচ্ছিলেন মনির হোসেন। তিনি পাঁচ বছর ধরে মধ্যপ্রাচ্যে কর্মরত ছিলেন। তিন মাস আগে তিনি বাংলাদেশে গ্রামের বাড়ি ভোলায় ফিরে আসেন। এর প্রায় দেড় মাস পর ঢাকায় আসেন কর্মসংস্থানের জন্য। এক মাস আগে থেকে আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের বাসের চালকের সঙ্গে ওই গাড়িতে দৈনিক ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা মজুরিতে চালকের সহকারীর কাজ শুরু করেন। দুর্ঘটনার দিন বিকেল ৪টায় আজমেরী পরিবহনের বাসটি (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৫৭৮৭) সদরঘাট থেকে গাজীপুরের উদ্দেশে ছাড়ে। গুলিস্তানে এসে গাড়িটি চালকের সহকারী মনির হোসেনের দায়িত্বে দিয়ে যান। মনির গাড়িটি চালিয়ে মগবাজার মোড়ে নিয়ে আসেন।

র‌্যাব জানায়, মগবাজার মোড়ের সিগন্যাল ছেড়ে দিলে দ্রুত গাড়ি দুইটি এগিয়ে যাচ্ছিল, তাদের উদ্দেশ্য ছিল পরবর্তী স্টপেজে বেশি সংখ্যক যাত্রীদের তার বাসে নেওয়া। এ সময় এক গাড়ি অপর গাড়িটিকে অতিক্রম করার সময় দুই গাড়ির মাঝখানে চাপা পড়ে ওই কিশোর।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আরেকটি বাস চালাচ্ছিলেন মো. ইমরান হোসেন। তিনি ১০-১২ বছর ধরে আজমেরী গ্লোরী কোম্পানির বাস চালাচ্ছেন। ওই বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৬০-৫৬) তিনি দুই বছর চালাচ্ছেন। তিন বছর আগে তিনি ড্রাইভিং লাইসেন্স করেছেন বলে জানান। বাস মালিকের কাছ থেকে দৈনিক ৩ হাজার ৫০০ টাকা হারে বাসটি ভাড়ায় চালানো শুরু করেন। ইমরানের বিরুদ্ধে এর আগে ২০২১ সালে কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা রয়েছে।

গত ২০ জানুয়ারি রাজধানীর মগবাজার মোড়ে বিকাল ৫টায় আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের দুই বাসের মাঝে চাপা পড়ে মো. রাকিবুল হাসান (১৪) নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ