চলে গেলেন অ্যান হিশ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ আগস্ট ২০২২, ০০:১৯

বাঁচানো গেল না হলিউড অভিনেত্রী অ্যান হিশকে। এক সপ্তাহ কোমায় থাকার পর লস অ্যাঞ্জেলসের হাসপাতালে মৃত্যু হল ৫৩ বছরের এই অভিনেত্রীর।

পরিবার-পরিজনের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আমরা আমাদের উজ্জ্বল আলোটুকু হারিয়ে ফেললাম। তিনি যেমন দয়ালু, হাসিখুশি, সৎ বন্ধু ছিলেন, তেমনই ছিলেন এক জন স্নেহময়ী মা। উদাহরণ হিসাবে রেখে গেলেন কাজের প্রতি তার নিষ্ঠা, এত দিনের অভিনয় জীবনের ঔজ্জ্বল্য... আর তার ছেলেদের। এ সবের মধ্যেই বেঁচে থাকবেন অ্যান।’

শুক্রবার ঘটেছিল সেই ভয়াবহ দুর্ঘটনা। আমেরিকার সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, মাদক সেবন করে ক্যালিফোর্নিয়ার শহর সীমান্তে গাড়ি চালাচ্ছিলেন ‘দ্য ব্রেভ’ অভিনেত্রী। তাঁর নীল ছোট কুপার একটি বাড়িতে গিয়ে ধাক্কা মারে। তার পরই বিস্ফোরণ। আগুন জ্বলে ওঠে গাড়িতে। নিমেষে ঝলসে যান ৫৩ বছরের অ্যান। এক প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ান অনুযায়ী, দুর্ঘটনার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তাকে গাড়ি থেকে বার করে আনা হয়। কিন্তু তত ক্ষণে অনেকটাই জ্বলে গিয়েছিল তার শরীর।

যে বাড়িতে দুর্ঘটনাটি ঘটে, সেই সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন বাড়ির সদস্যরা। তারা বলেন, অনেকটা পুড়ে গেলেও নিশ্বাস নিচ্ছিলেন অভিনেত্রী। তার পরই কোমায় চলে যান অ্যানি।

এত দিনের যুদ্ধে হারই হল চিকিসকদের। মাথায় প্রবল আঘাত লেগেছিল। চিকিৎসার পরও মস্তিষ্ক সাড়া দিচ্ছিল না অ্যানের। আইনত তাকে মৃত ঘোষণা করে লস অ্যাঞ্জেলসের হাসপাতাল। কিন্তু হৃদ্‌স্পন্দন থামেনি তার। ভেন্টিলেশনে তার শ্বাসক্রিয়া চালু রাখা হয়েছে। জানা যায়, অভিনেত্রীর ইচ্ছে ছিল, মরণোত্তর দেহ এবং অঙ্গপ্রত্যঙ্গ দান করবেন। সেই ইচ্ছেপূরণের জন্যই তার দেহে রক্ত সঞ্চালনের চেষ্টা করছেন চিকিৎসকরা। সেই কাজ শেষ হলে ভেন্টিলেশন খুলে নেয়া হবে।

খুব ছোট বয়সে অভিনয়ে আসেন অ্যান। টেলিভিশনে বিভিন্ন ধারাবাহিকে অভিনয় করে কেরিয়ার শুরু করেন। ‘অ্যানাদার ওয়ার্ল্ড’ (১৯৮৭- ১৯৯১) টেলিভিশন সিরিজের মাধ্যমে দর্শকদের নজর কাড়েন। সেখানে তাকে দেখা গিয়েছিল দ্বৈত চরিত্রে। এ ছাড়াও ‘কোয়ান্টিকো’-তে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সহ-অভিনেত্রী হিসেবেও তাকে দেখেছেন দর্শক। অভিনয় করেছেন অজস্র ছবিতে।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ