আড়াই কোটি টাকার স্বর্ণ নিয়ে ভারত সীমান্তের দিকে যাচ্ছিল চোরাকারবারী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০২৪, ২১:১৩

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থানাধীন ঠাকুরপুর সীমান্ত থেকে প্রায় আড়াই কোটি টাকার আটটি স্বর্ণের বারসহএক চোরাকারবারিকে আটক করেছে বিজিবি। দুপুর ১টার দিকে দর্শনার ঠাকুরপুর বাগানপাড়া এলাকা থেকে স্বর্ণের বারগুলোসহ আকরামকে আটক করা হয়।

বিজিবি জানায়, চারটি প্যাকেটে আটটি স্বর্ণের বার কোমরের সঙ্গে কালো স্কচটেপ দিয়ে পেঁচানো ছিল। অভিযুক্ত যুবকের নাম আকরাম হোসেন (৩০)।

বুধবার (১০ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টায় বিজিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আটক আকরাম একই এলাকার মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সাঈদ মোহাম্মদ জাহিদুর রহমান জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায় যে ঠাকুরপুর সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে স্বর্ণ পাচার করা হবে। খবর পেয়ে ঠাকুরপুর বিওপির সদস্যরা সীমান্ত পিলার ৯০ থেকে আনুমানিক দেড় কিলোমিটার বাংলাদেশের ভেতরে ঠাকুরপুর বাগানপাড়ার বটগাছের নিচে অবস্থান নেন।

পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে একটি মোটরসাইকেলে করে ওই এলাকা দিয়ে সীমান্তের দিকে যেতে দেখে আকরামকে থামতে বলা হলে তিনি মোটরসাইকেল নিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে তাকে আটক করে তল্লাশি চালালে তার কোমরের সঙ্গে কালো স্কচটেপ দিয়ে পেঁচানো চারটি প্যাকেটে আটটি স্বর্ণের বার পাওয়া যায়। এ স্বর্ণের ওজন দুই কেজি ৩৩৫ গ্রাম।

এসময় জব্দ করা হয় তার মোটরসাইকেলটিও। জব্দ করা স্বর্ণের আনুমানিক বাজার মূল্য আড়াই কোটি টাকা।

এ ঘটনায় মামলা দিয়ে আটক ব্যক্তিকে দর্শনা থানায় হস্তান্তর করা হচ্ছে। স্বর্ণের বারগুলো চুয়াডাঙ্গা ট্রেজারি অফিসে জমা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান বিজিবির এ কর্মকর্তা।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ