ফুলবাড়ীতে রাস্তায় ট্রলি আটকিয়ে ১০২ বস্তা ধান ছিনতাই

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১৩:৩১

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের চাকলাপাড়া মহেশপুর গ্রামে ডা. মো. আবু নছর নুরুল ইসলাম চৌধুরীর জমি থেকে ধান কেটে ট্রলিতে করে নিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিপক্ষরা ট্রলি থেকে ১০২ বস্তা ধান ছিনতাই করে নিয়ে যায় খেতাব উদ্দীন গংরা। 

ফুলবাড়ী উপজেলার পৌরসভা এলাকার কাঁটাবাড়ী গ্রামের মো. আমিনুল ইসলাম চৌধুরীর পুত্র ডা. মো. আবু নছর নুরুল ইসলাম চৌধুরীর ফুলবাড়ী থানায় গত ২৪/১১/২০২২ তারিখে দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে মহেশপুর মৌজায় ১১ একর ৪০ শতক জমিতে আমন ধান চাষ করেন ডা. মো. আবু নছর নুরুল ইসলাম চৌধুরীর ও তার চাচা মমতাজ হাসান চৌধুরী। উক্ত ১১ একর ৪০ শতক জমি কবলা দলিল মূলে মালিক হয়ে দীর্ঘ দিন ধরে ভোগদখল করে আদিয়ার দ্বারা চাষবাদ করে আসছি। 

প্রতিপক্ষ মো. খেতাব উদ্দীন (৬৫), মশিউর রহমান মশি (৫০), মো. আতিউর রহমান আতি (৪৮), সর্ব পিতা মৃত খয়ের উদ্দীন মোঃ জাহাঙ্গীর (৩৫) পিতা খেতাব উদ্দীন মো. লাবু (৩৫) পিতা মো. আতিউর রহমান আতি, মো. সুমন (২২) পিতা মো. বাবু, মো. লাবিব (২০) পিতা মো. আতিয়ার রহমান সর্ব সাং-ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের চাকলা পাড়া মহেশপুর গ্রাম। গত ২৪/১১/২০২২ তারিখ সকাল থেকে উক্ত জমিতে আমন ধান কাটার জন্য কমবাইন্ড হারভেষ্টার মেশিন দ্বারা ধান কাটা শুরু হয় ও বস্তা করা হয়। 

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ১২৫ বস্তা ধান ২টি ট্রলিতে করে মহেশপুর রাস্তা দিয়ে রিফাতের মিল চাতালে শুকানোর জন্য নিয়ে যাওয়ার সময় বিকেল ৫টায় অজ্ঞাতনামাসহ উল্লেখ্য ব্যক্তিরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে সংঘবদ্ধ হয়ে জোরপূর্বক ট্রলি ড্রাইভারকে ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে জীবননাশের হুমকি দেয় এবং মারপিট করে ধান ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় গত ২৪/১১/২০২২ তারিখে ৭ জনকে অভিযুক্ত করে ডা. মো. আবু নছর নুরুল ইসলাম চৌধুরীর ফুলবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। 

এই ঘটনায় ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আশ্রাফুল ইসলামের সাথে গতকাল শনিবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তদন্ত সাপেক্ষে মামলা হয়েছে অচিরেই আসামিদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। 

অভিযোগকারী ডা. মো. আবু নছর নুরুল ইসলাম চৌধুরীর জানান, উক্ত জমি আমাদের কিন্তু প্রতিপক্ষরা জোর করে জমি দখলের পায়তারা করে আসছে তাদের কোন বৈধতা নাই। সে একজন মামলাবাজ ও এলাকার অপরাধী চক্রের হোতা।

এবিএন/মো. আফজল হোসেন/জসিম/গালিব

এই বিভাগের আরো সংবাদ