কমলগঞ্জে ‘কুরুখ ভাষার বর্ণমালা ও অভিধান’ বিষয়ে আলোচনা সভা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১২:০০

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর সাহিত্যাঙ্গনের আয়োজনে শুক্রবার বিকেল ৪টায় স্থানীয় ব্রাদার্স পার্টি সেন্টারে আন্তর্জাতিক আদিবাসী ভাষা দশক উপলক্ষে "কুরুখ ভাষার বর্ণমালা ও অভিধান" বিষয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনসংযোগ বিশেষজ্ঞ, ভাষাবিজ্ঞানী, শিক্ষাবিদ ও থিংক ট্যাঙ্ক ব্যক্তিত্ব ড. সেলু বাসিত।

শমশেরনগর সাহিত্যাঙ্গনের আহবায়ক কবি শাহাজান মানিকের  সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক মুজিবুর রহমান রঞ্জুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উরাং সমাজকল্যাণ সংস্থা, সিলেটের সভাপতি পূরণ বাকলা, লেখক-গবেষক আহমদ সিরাজ, গ্রন্থের লেখক প্রভাষক দীপঙ্কর শীল। 

আলোচনায় অংশ নেন শিক্ষাবিদ অপূর্ব নারায়ণ, চা শ্রমিক নেতা সীতারাম বীন, প্রভাষক সেলিম আহমদ চৌধুরী, উপজেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক শাব্বির এলাহী, আদিবাসী নেতা সুনীল কুমার মৃধা, শিক্ষক অসমঞ্জু প্রসাদ রায় চৌধুরী, শব্দকর সমাজ উন্নয়ন সমিতির সভাপতি প্রতাপ শব্দকর, কবি রোপক মোহন প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, প্রভাষক দীপঙ্কর শীল এর সম্পাদনায় "কুরুখ ভাষার বর্ণমালা ও অভিধান" বিষয়ে গ্রন্থটি অত্যন্ত সময়োপযোগী। 

উরাংসহ ক্ষুদ্র জাতিসত্তাগুলোর ভাষা সংরক্ষণ ও বিকাশের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে ‘নৃভাষা বৈজ্ঞানিক সমীক্ষা’ কর্মসূচির মাধ্যমে এ দেশে বসবাসরত ক্ষুদ্র জাতিসত্তাগুলোর ভাষা, উচ্চারণ, বর্ণমালা, ভাষার বৈশিষ্ট্য, ইতিহাস ও ঐতিহ্য সম্পর্কে মাঠপর্যায় থেকে তথ্য ও উপাত্ত সংগ্রহ করে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সংরক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

এ সমীক্ষাটি সফলভাবে সম্পন্ন হলে এ দেশের ক্ষদ্র্র জাতিসত্তাগুলোর ভাষা অধিকার রক্ষার একটি ক্ষেত্র তৈরি হবে। আজ সেই ক্ষণ এসেছে দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত এ দেশের ক্ষুদ্র জাতিসত্তাগুলোর মাতৃভাষা সংরক্ষণ ও বিশেষ মর্যাদা প্রদানের।

এবিএন/প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ/জসিম/গালিব

এই বিভাগের আরো সংবাদ