আজকের শিরোনাম :

গোবিন্দগঞ্জে মালামালসহ প্রতারক চক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৫২

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থানার শ্বাসরুদ্ধকর টানা ০২ দিনের অভিযানে আন্তঃজেলা সয়াবিন তৈল প্রতারক চক্রের ২ সক্রিয় সদস্য একটি পিকআপ, সয়াবিন তৈল ও টিস্যু উদ্ধার করেছে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ। 

থানা সূত্রে জানা যায়, মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ এর গোবিন্দগঞ্জ ও ঘোড়াঘাট থানার ডিলার মোঃ আনিছুর রহমান এর নিকট হতে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কাটাবাড়ি ইউপির বাদগা বাজার হতে গত(২৬ সেপ্টেম্বর) প্রায় পৌনে ৫ লক্ষ টাকার সয়াবিন তৈল সহ অন্যান্য মালামাল অর্ডার দেয় প্রতারক চক্রের সদস্য। তারপর সয়াবিন তৈল ও টিস্যু ডেলিভারী নেয়। কিন্তু মালামালের দাম প্রায় পৌনে ৫ লক্ষ টাকা পরিশোধ না করে মালামাল ডেলিভারী নিয়ে একটি পিকআপ ভ্যানে উঠিয়ে পালিয়ে যায় প্রতারক চক্রের সদস্যগন। 

উক্ত ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হইলে এসআই প্রলয় কুমার বর্মার নেতৃত্বে টিম গোবিন্দগঞ্জ দিনাজপুর জেলার বিরামপুর থানা, নবাবগঞ্জ থানা ও চিরিরবন্দর থানা এলাকায় টানা ২দিন অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক চক্রের ২ সদস্যকে গ্রেফতার করেন এবং প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত বিরামপুর থানার প্রাচুর্য্য ইন্টারপ্রাইজ এর একটি পিকআপ, সয়াবিন তৈল ও টিস্যু উদ্ধার করেন। 

গ্রেফতারকৃত প্রতারক চক্রের সদস্যরা হলেন বিরামপুর থানার ইমান আলীর ছেলে সোহরাওয়ার্দ্দী এবং নবাবগঞ্জ থানার কলন্দপুর গ্রামের আমিনুল ইসলামের ছেলে আলতাফ হোসেন।

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রলয় কুমার বর্মা জানান, এটি একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র। এই চক্রটি দিনাজপুর, গাইবান্ধা ও বগুড়া সহ বিভিন্ন জেলায় প্রতারণা মূলক ভাবে সয়াবিন তৈল সহ বিভিন্ন পণ্য আত্মসাৎ করে থাকে। আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এই প্রতারক চক্রের সহিত জড়িত অন্যান্য সদস্যদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসব।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইজার উদ্দিন বলেন,যে কোন ধরনের অপরাধ মূলক কর্মকান্ডকে প্রতিহত করার জন্য গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ দিন রাত কাজ করে যাচ্ছে। অপরাধীরা কেউ রেহাই পাবে না। আদালতের মাধ্যমে আসামিদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হবে।

এবিএন/জসিম/গালিব

এই বিভাগের আরো সংবাদ