পির আলীর সন্তান সোহানা মেহেদীর দ্বায়িত্ব নিলেন ইঞ্জিনিয়ার সাগর

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:০৫

সোহানার বয়স পাঁচ বছর আর তার ছোট ভায়ের বয়স দেড়। সংসারে একমাত্র আয়ের উৎস ছিলেন বাবা। পরের জমিতে শ্রমিকের কাজ করেই চলতো স্বামী-স্ত্রী আর দুই সন্তানের সংসার। অভাব অনাটন থাকলেও সুখের আশায় দিন ভালোই কাটতো তাদের। এরইমধ্যে ২৪ জানুয়ারি সোমবার সকালে গলাই রশি বাধা অবস্থায় তার বাবা’র মরদেহ স্থানীয় একটি খাল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

স্বামীর মৃত্যুর পর ছোট্ট সোহানা আর মেহেদীকে বুকে জড়িয়ে সন্তানদের অজানা ভবিষ্যৎ ভেবে ডুকরে ডুকরে কাদছে মা জোসনা। বাড়ি জুড়ে চলছে শোকের মাতম। বিভিন্ন মাধ্যমে এমন সংবাদ জানার পর নিহতের দুই সন্তানের দ্বায়িত্ব নিয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার আনোয়ার পারভেজ সাগর। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের বাড়িতে গিয়ে পরিবারের খোঁজ খবর নেন। এসময় নিহতের স্ত্রী জোসনার হাতে দুই সন্তানের জন্য খাবার, জামা কাপড় এবং নগদ পাঁচহাজার টাকা তুলে দেন। এছাড়া আগামি দিনগুলো সোহানা মেহেদীর লেখাপড়া ও নিহত পির আলীর পরিবারের ভরণপোষনের দ্বায়িত্ব নেন তিনি।

নিহত ব্যক্তির নাম পির আলী। তিনি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার কাষ্টভাঙ্গা ইউনিয়নের সামছুল হকের ছেলে ও ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। তিনি ওই গ্রামের দুটি স্পর্শকাতর মামলার প্রধান স্বাক্ষী ছিলেন। বিভিন্ন সময় আসামিরা তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিত। নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে এক মাস আগে ৪ ডিসেম্বর কালীগঞ্জ থানায় একটি জিডিও করেছিলেন।

নিহত পির আলীর স্ত্রী জোসনা খাতুন জানান, সাংসারে কোন গোলযোগ ছিল না। সে কারও ক্ষতিও করেনি। আমার স্বামী নাইট গার্ডের কাজ করতো। সেখান থেকে মাসে ১৫০০ টাকা পেত। পাশাপাশি পরে ক্ষেতে কাজ করে সংসার চলতো। আয়ের একমাত্র পথ এখন বন্ধ, আমি বাচ্চাদের নিয়ে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবো। বাচ্চাদের নিয়ে কিভাবে বেঁচে থাকবো বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) চলতি দায়িত্ব মতলেবুর রহমান জানান, প্রাথমিক তদন্তে পীর আলী গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানাগেছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। তিনি আরো জানান, মৃত্যুর আগের দিন ২৩ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৬ টা ৪৮ মিনিটে সাকো বাজারের পুজা স্টোর এর মালিক শিমুলের কাছ থেকে দড়ি ক্রয় করে। যেটা সিসি ক্যামেরায় ধারন হওয়া রেকর্ড পুলিশ সংগ্রহ করেছে। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে বিষয়টি পরিস্কার হওয়া যাবে।


এবিএন/নয়ন খন্দকার/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ