উলিপুরে মা মেয়েকে বেধড়ক মারপিট ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৩৫

কুড়িগ্রামের উলিপুরে বসত ভিটার সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে মা মেয়েকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত ও শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের বিজয়রাম তবকপুর গ্রামে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগি ওই পরিবার থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই এলাকার সাবেক শিক্ষক আব্দুল জব্বারের সাথে প্রতিবেশি জেমি, সাব্বির, সাদ্দাম ও নুরনবী গংদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বসতভিটার সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। পূর্ব থেকেই তারা ওই শিক্ষকের পরিবারের ক্ষতি সাধন করার লক্ষ্যে নানান তৎপরতা চালিয়ে আসছিল। ঘটনার দিন গত ৩০ নভেম্বর আব্দুল জব্বারের স্ত্রী জায়েদা বেগম (৬৫) গ্রামের মুদি দোকানে খরচ আনতে যাওয়ার পথে জায়েদাকে দেখে প্রতিপক্ষরা নানানভাবে গালিগালাজ শুরু করে। জায়েদা বেগম গালাগালির কারণ জানতে চাইলে তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

পরে জায়েদা বেগম তার স্বজনদের খবর দেয়ার চেষ্টা করলে প্রতিপক্ষরা সংঘবদ্ধ হয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এক পর্যায়ে তার শ্লীলতাহানি ঘটায়। খবর পেয়ে তার স্বজনরা ঘটনাস্থলে আসলে তাদের উপরও স্বশস্ত্র হয়ে হামলা চালানো হয়। এসময় তাদের  শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়। পরে স্থানীয় লোকজন জায়েদা বেগম ও তার মেয়ে জয়নাবকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগি ওই পরিবার  থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

জয়নাব বেগম বলেন, আমরা অসহায় পরিবার। বৃদ্ধ বাবাকে তারা বিভিন্ন সময় নানাভাবে হয়রানী করে আসছে। আমাদেরকে এত মারপিট করেও তারা ক্ষান্ত হয়নি। বাড়ির পাশেই ওদের বাড়ি হওয়ায় বিভিন্ন উচ্চস্বরে আমাদেরকে লক্ষ্য নানা ধরণের হুমকি দিয়ে আসছে। বর্তমানে আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার প্রার্থনা করছি।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


এবিএন/আব্দুল মালেক/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm