হরিপুরে কারেন্ট পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০৩

চলতি মৌসুমে হরিপুরে আমন ধানের খেতে কারেন্ট পোকার আক্রমণ ব্যাপকহারে দেখা দিয়েছে।

অন্যবারের তুলনায় এবার বেশ আগে ভাগে এ পোকার আক্রমণ শুরু হয়েছে। উপজেলার সব এলাকায় এ পোকার আক্রমণ দেখা যাচ্ছে। হঠাৎ পোকার আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন আমন চাষিরা। বিভিন্ন বালাইনাশক ব্যবহার করেও তাদের প্রতিকার মিলছে না। অনেক চাষি আবার আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে আগাম বালাইনাশক ছিটাচ্ছেন। কৃষকরা বলছেন, প্রতিবছরই আমন খেতে কারেন্ট পোকার আক্রমণ লাগে। বিশেষ করে ধানের শীষ সম্পূর্ণ বেরিয়ে ঝুল দিলে এ পোকার আক্রমণ দেখা দেয়। কিন্তু এবার শীষ বের হওয়ার আগেই এ পোকার আক্রমণ শুরু হয়েছে। যা অন্যবারের তুলনায় অনেক বেশি।

ফলে কৃষক বুঝে ওঠার আগেই কারেন্ট পোকার আক্রমণে খেত শেষ হয়ে যাচ্ছে। কারেন্ট পোকা মূলত ধান গাছের গোড়ায় আক্রমণ করে পচন ধরিয়ে দেয়। এরপর রস চুষে নিয়ে গাছ কালছে করে ফেলে। তখন শুকিয়ে ধানগাছ লুটিয়ে পড়ে। অনেকসময় এ পোকার আক্রমণে ধানগাছের পাতা লালছে হয়ে যায়।

কৃষকদের অভিযোগ, এমন সংকট মুহূর্তে তাঁরা কৃষি অফিসের পরামর্শ পাননা। কীটনাশক দোকানিদের পরামর্শে নানা ব্যবস্থা নিয়ে তাঁরা কাঙ্খিত ফল পাননা। ফলে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন তাঁরা। শনিবার (১৬ অক্টোবর) সরেজমিন এসব অভিযোগ করেন কৃষকরা। তবে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার দাবি, কারেন্ট পোকার আক্রমণ  দেখা দিলেও তা এখনো মারাত্মক ক্ষতির পর্যায়ে যায়নি। কৃষকদের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে তাঁরা তৎপর রয়েছেন।

উপজেলার লখড়া গ্রামের চাষি তারেক আজিজ বলেন, দুই বিঘা জমির আমন খেতে কারেন্ট পোকা আক্রমণ করেছে। কীটনাশক দোকানির পরামর্শে বালাই নাশক ছিটিয়েছি। তিনি বলেন, এ বছরের মত এত বিষ কোনবার ছিটাইনি।

একটার পর একটা রোগ দেখা দিচ্ছে। কোন কৃষি অফিসাররে দেখিনি কোনদিন। ডাঙ্গীপাড়া গ্রামের কৃষক আক্তার হোসেন বলেন, চার বিঘা আমন চাষ করেছি। সব জমিতে কারেন্ট পোকা আক্রমণ করেছে। কাদিয়ারা গ্রামের কৃষক মোস্তফা কামাল বলেন, মাঠে ব্যাপক হারে কারেন্ট পোকা লেগেছে। খেত রক্ষায় দুই বিঘা জমিতে আগাম স্প্রে করার জন্য ১০০০ টাকার বিষ কিনেছি। হরিপুরে এবার ১৬ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ হয়েছে। যা পূর্বেও যে কোন বছরের তুলনায় অধিক। বাজারে ধানের চড়া দাম থাকায় কৃষক এ মৌসূমে উচ্চ ফলনশীল নানা জাতের ধান চাষ করেছেন।


হরিপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রুবেল হুসেন বলেন, আবহাওয়া জনিত কারণে এবার পোকার আক্রমণ একটু বেশি। সেটা যেন ক্ষতির পর্যায়ে না যায় সেই ব্যাপারে আমরা কাজ করছি। কৃষকদের নানাভাবে পরামর্শ দিচ্ছি, লিফলেট বিতরণ মাইকিং করছি। আমাদের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা কাজ করছেন। কৃষক ভাইদের একটি অনুরোধ কারেন্ট পোকা গাছের গোড়ায় আক্রমণ করে সেহেতু গাছের গোড়ায় স্প্রে করতে হবে। চাষিদের যে কোন প্রয়োজনে কৃষি কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

এবিএন/কবিরুল ইসলাম/গালিব/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm