শর্ত ভঙ্গ করলেই ইজারাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: মেয়র তাপস

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ জুলাই ২০২২, ২০:২০

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, হাটগুলোতে যদি কোনো ইজারাদার শর্ত ভঙ্গ করে, তাহলে আমাদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেবেন। হাটে কোনো বিশৃঙ্খলা হোক আমরা সেটা চাই না।

আজ বুধবার (৬ জুলাই) নগরের বকশিবাজারস্থ উমেশ দত্ত সড়কের প্রশস্তকরণে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন পরিচালিত উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, আমরা বলেছি আমাদের কোনো খেলার মাঠে হাট দেওয়া হবে না। আমরা খেলার মাঠে হাট দেইনি। মাত্র ১০টি হাট দেওয়া হয়েছে।

কোরবানির পশু জবাইয়ে সুনির্দিষ্ট স্থান নির্ধারণ করা সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, শুধু জাজেস কোয়ার্টার ও অফিসার্স কোয়ার্টারের জন্য তিনটি সুনির্দিষ্ট স্থানে আমরা কোরবানির পশু জবাইয়ের ব্যবস্থা করছি। এছাড়া ওয়ার্ডভিত্তিক কোনও নির্দিষ্ট স্থানে পশু জবাইয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে না। এলাকাবাসী ওয়ার্ডভিত্তিক তাদের মতো করেই তারা পশু জবাই দেবে। তবে জবাইয়ের পরপর দুপুর ১২টার মধ্যেই তারা সেই পশুর বর্জ্য আমাদের (ওয়ার্ডভিত্তিক) নির্দিষ্ট বর্জ্য সংগ্রহকারীর মাধ্যমে বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্রে পৌঁছে দেবে।    

জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদ জামাতের প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানিয়েছেন মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস। এ সময় তিনি ঢাকাবাসীকে জাতীয় ঈদগাহে পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের আহ্বান জানান। সকাল ৮টায় জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

বকশিবাজারস্থ উমেশ দত্ত সড়কের প্রশস্তকরণে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন পরিচালিত উচ্ছেদ কার্যক্রম বিষয়ে মেয়র বলেন, পুরাতন ঢাকাবাসীর প্রত্যাশা অনুযায়ী উমেষ দত্ত সড়ককে ৫০ ফুট প্রশস্ত করা হচ্ছে। আমাদের পুরাতন ঢাকার চকবাজার, বকশিবাজার এলাকার এই রাস্তাটি অত্যন্ত সরু। 

তিনি বলেন, সড়কটি প্রশস্ত করার জন্য এ এলাকার জনগণের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা ছিল। ৪০ ফুট মূল সড়ক এবং ২ পাশে ৫ ফুট করে ১০ ফুট হাঁটার পথ (ফুটপাত)। সবমিলিয়ে ৫০ ফুট প্রশস্ত একটি সড়ক আমরা পুরাতন ঢাকার মানুষদের উপহার দেব।   

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-৯ আসনের সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী, দক্ষিণ সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, প্রধান প্রকৌশলী সালেহ আহম্মেদ, সচিব আকরামুজ্জামান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী মোর্শেদ হোসেন কামাল, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী খায়রুল বাকের প্রমুখ।

এবিএন/আব্দুর রাজ্জাক/জসিম/এআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ