শিশু কেন্দ্রিক প্রস্তাবিত বাজেটে বরাদ্দ বেড়েছে ১৪ হাজার ৫৪০ কোটি টাকা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০১৯, ১৮:৫০

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০১৯-২০ অর্থবছরে জন্য আজ ৮০ হাজার ১৯০ কোটি টাকার পৃথক শিশু বাজেট উপস্থাপন করেছেন। এ বাজেটে অন্তর্ভুক্ত মন্ত্রণালয়/বিভাগের সংখ্যা হলো ১৫টি। গত অর্থবছরের চেয়ে প্রস্তাবিত বরাদ্দ বেড়েছে ১৪ হাজার ৫শ’ ৪০ কোটি টাকা। এবছর পঞ্চম বারের মতো শিশুদের জন্য পৃথক বাজেট প্রণয়ন করা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বাজেট বক্তৃতায় বলেন, শিশু- কেন্দ্রিক বাজেট বৃদ্ধিতে সরকারের অগ্রাধিকার অব্যাহত আছে। বিগত অর্থবছরের তুলনায় ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে শিশু কেন্দ্রিক বাজেট প্রস্তাব উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেড়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশের জাতীয় বাজেটের প্রবৃদ্ধির তুলনায় শিশু কেন্দ্রিক বাজেট প্রবৃদ্ধি প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে।

তিনি বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটের সাথে তুলনা করলে ২০১৯-২০ অর্থবছরে নির্বাচিত ১৫টি মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবিত বাজেট বেড়েছে ১১.৮ শতাংশ। একই সময়ে শিশু-কেন্দ্রিক প্রস্তাবিত বাজেট ৬৫ হাজার ৬৫০ কোটি টাকা থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৮০ হাজার ১৯০ কোটি টাকায়। প্রবৃদ্ধির হার হিসেবে যা ২২.১৬ শতাংশ।

অর্থমন্ত্রী বলেন, শিশু কেন্দ্রিক প্রকল্প ও কর্মসূচি বাস্তবায়নে মন্ত্রণালয়গুলোর প্রচেষ্টা আগের বছরগুলোর তুলনায় বেড়ে যাওয়ায় মন্ত্রণালয়গুলোর সার্বিক বরাদ্দের প্রবৃদ্ধির চেয়ে শিশু-কেন্দ্রিক কার্যক্রমের বরাদ্দের প্রবৃদ্ধি বেশি। এর ফলে নির্বাচিত মন্ত্রণালয়গুলোর মোট বাজেটের অনুপাতে শিশু সংবেদনশীল বরাদ্দও আগের অর্থবছরের ৪৩.৫৬ শতাংশ হতে ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেট ৪৭.৫৯ শতাংশে বেড়েছে।

তিনি বলেন, সরকারের মোট বাজেটে শিশু কেন্দ্রিক বাজেটের হিস্যা ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ১৪.১৩ শতাংশ হতে ২০১৯-২০ অর্থবছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫.৩৩ শতাংশে। জিডিপি’র অনুপাতে শিশু-কেন্দ্রিক কার্যক্রমে বাজেট বরাদ্দের হার গত এক বছরে ২.৫৯ শতাংশ হতে বেড়ে ২.৭৮ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। শিশু বাজেটের জন্য নির্বাচিত ১৫টি মন্ত্রণালয়ের বাজেট পর্যালোচনায় দেখা যায় ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রতিটি মন্ত্রণালয়ের মোট বাজেটের অনুপাতে শিশু-কেন্দ্রিক প্রস্তাবিত বাজেট বেড়েছে।

সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রথমবারের মতো ৫টি মন্ত্রণালয়ের জন্য শিশু-কেন্দ্রিক বাজেট উপস্থাপন করে। এরপর পরপর চারবার শিশু কেন্দ্রিক বাজেট উপস্থাপন করেন। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে তিনি ১৫টি মন্ত্রণালয়ের জন্য শিশু-কেন্দ্রিক বাজেট উপস্থাপন করেন। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল তারই ধারাবাহিকতায় এবছর ৮টি মন্ত্রণালয় ও ৭টি বিভাগের জন্য শিশু-কেন্দ্রিক বাজেট প্রস্তাব করেন। মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলো হলো; প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়; কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, জননিরাপত্তা বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং আইন ও বিচার বিভাগ। বাসস

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ