সমুদ্রবন্দরগুলোয় ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ মে ২০২০, ১০:০৫ | আপডেট : ২৭ মে ২০২০, ১২:৪১

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বেশিরভাগ জেলার ওপর দিয়ে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। মঙ্গলবার (২৬ মে) দিবাগত রাত এবং বুধবার (২৭ মে) ভোরে তীব্র গতিতে ঝড় আঘাত হানে। ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাব কাটতে না কাটতে আবারও তীব্র ঝড়ের মুখোমুখি হলো জেলাগুলো। উত্তর বঙ্গোপসাগরে বাতাসের চাপ বেশি থাকায় এ ঝড় হচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

দেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে বলে আগেই পূর্বাভাস দিয়েছিল আবহাওয়া অধিদফতর। ঈদের দিন অর্থাৎ ২৫ মে থেকে গত তিন দিন ধরেই চার সমুদ্র বন্দরে দেখাতে বলা হচ্ছে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত। একই সঙ্গে উপকূলীয় এলাকা স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে দুই থেকে চার ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলেও আশঙ্কা করে আবহাওয়া অধিদফতর। 

আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান বলেন, উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের দিকে একটি লঘুচাপ রয়েছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে বলে আমরা আশঙ্কা করছি।  এ কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়ার সতর্ক বার্তায় বলা হয়, বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য ও অমাবস্যার প্রভাবে রাতে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম, ও কক্সবাজার এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ২-৪ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে ।

অন্যদিকে আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, রাজশাহী,  রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং চট্টগ্রাম ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং বরিশাল ও খুলনা বিভাগের দু'এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ