ই-কমার্সে ঘুরে দাঁড়াতে করোনা বিধ্বস্ত চীনের নতুন কৌশল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১০:০৯

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ এ বিধ্বস্ত চীন আবার ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য নানা প্রস্তুতি নিচ্ছে। এজন্য প্রাথমিকভাবে তারা ই-কমার্সকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। এই প্রস্তুতির অংশ হিসেবে দেশটি ক্রস বর্ডার ই-কমার্স পাইলট জোন সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে। সেখানে আরও ৪৬টি রিটেইল আউটলেট স্থাপন করা হবে। এর মাধ্যমে চীন পণ্য বাণিজ্য নতুন করে গতি সঞ্চার করতে চায়।

কাস্টমসের তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১৯ সালে দেশটিতে ই-কমার্সে পণ্য বিক্রি হয়েছে ১৮৬.২১ বিলিয়ন ইউয়ান বা ২৬ বিলিয়ন ডলারের।

এ দিকে, লকডাউন পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠা চীন গত পাঁচ মাসের অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবিলায় নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে। মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) দেশটির মন্ত্রীসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং বিশ্ব অর্থনীতি বিবেচনা করে চীনের ব্যবসা-বাণিজ্য গতি সঞ্চারের লক্ষ্যে দেশটির করনীতি, প্রাতিষ্ঠানিক ক্ষুদ্র ঋণ, উদ্যোক্তা, এবং কৃষকপর্যায়ে সহায়তার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন। এই সহায়তা ২০২৩ সাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানা গেছে।

এছাড়া আগামী ১৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ক্যান্টন মেলা পিছিয়ে ১৫ জুন থেকে আয়োজনের পরিকল্পনা করেছে দেশটির সরকার। ক্যান্টন মেলা হলো একটি বাণিজ্য মেলা যা ১৯৫৭ সালের বসন্তকাল থেকে চীনের কুয়াংচৌ শহরে (ক্যান্টন) প্রতি বছর বসন্ত ও শরৎকালে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এটি চীনের সবথেকে প্রাচীন, বৃহত্তম এবং সর্বাধিক প্রতিনিধিদের বাণিজ্য মেলা।

চীনা রপ্তানিকারক পণ্য মেলা থেকে নাম পরিবর্তন করে ২০০৭ সালে এটিকে চীন আমদানি ও রপ্তানি মেলা নামে নামকরণ করা হয়। মেলাটি চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও কুয়ায়তুং প্রদেশের সরকার যৌথভাবে আয়োজন করে থাকে এবং চীনের বৈদেশিক বাণিজ্য কেন্দ্র দ্বারা এটি পরিচালিত হয়।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ