জাতীয় তথ্যপ্রযুক্তি পুরস্কার পেল অরেঞ্জ বিজনেস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৩৩ | আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:৫১

বাংলাদেশ সার্ভিস অ্যাপ্লিকেশন প্লাটফর্ম (একসেবা প্লাটফর্ম) তৈরির স্বীকৃতিস্বরূপ প্রথমবারের মতো পাবলিক সেক্টর অ্যান্ড গভর্নমেন্ট অ্যান্ড সিটিজেন বিভাগে দ্বিতীয় স্থান অধিকারী হিসেবে জাতীয় তথ্যপ্রযুক্তি পুরস্কার-২০১৯ পেল অরেঞ্জ বিজনেস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের কাছ হতে পুরস্কার গ্রহণ করেন অরেঞ্জ বিজনেস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আল আশরাফুল কবির জুয়েল। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো. হাফেজ আহমেদ,পরিচালক মো. মুনির হোসেন ও নির্বাহী পরিচালক মো. শামীম হোসেন।

দেশের বিভিন্ন খাতের সেরা এমন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে স্বীকৃতি দিতে গত শনিবার (১২ অক্টোবর ২০১৯) বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজন করে জাতীয় তথ্যপ্রযুক্তি পুরস্কার-২০১৯। 

বাংলাদেশ সার্ভিস অ্যাপ্লিকেশন প্লাটফর্ম (একসেবা প্লাটফর্ম) যেখানে নাগরিকরা তাদের সব কাক্সিক্ষত নাগরিক সেবা এক ক্লিকেই (eksheba.gov.bd) পেতে সক্ষম হবে। eksheba.gov.bd তে ক্লিক করে নাগরিকরা তার পরিচয়পত্র/জন্মসনদের কপি প্রদান করে ব্যক্তিগত প্রোফাইল তৈরি করে তাদের কাঙ্ক্ষিত নাগরিক সেবার জন্য আবেদন এবং সেবার বর্তমান অবস্থা জানতে পারবে। 

বেসরকারি  প্রতিষ্ঠানের অনুমোদিত ব্যক্তিবর্গ যে কোনো সরকারি সেবার আবেদন থেকে শুরু করে পূর্ণ সেবা পাওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবে eksheba.gov.bd-তে ক্লিক এর মাধ্যমে।

সরকারি অফিস/দপ্তরগুলোর অনুমোদিত ব্যক্তিরা FORM BUILDS টচ মডিউল ব্যবহারের মাধ্যমে ফর্মগুলো তৈরি করতে সক্ষম হবে।

অরেঞ্জ বিজনেস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড এর পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আল আশরাফুল কবির জুয়েল বলেন, এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) কে আমি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি এমন একটি সল্যুশন তৈরির ক্ষেত্রে অরেঞ্জ বিজনেস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড কে সুযোগ দেওয়ার জন্য এবং বেসিস আমাদের এই সল্যুশনটিকে পুরস্কৃত করায় আমরা আনন্দিত এবং গর্বিত।

উল্লেখ্য, বেসিসের উদ্যোগে এবং আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের সৌজন্যে তৃতীয়বারের মতো আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ১ হাজার ১৭৫টি প্রকল্প জমা পড়েছিল। বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডসের তৃতীয় আসরে এবারে ৩৫টি ক্যাটাগরিতে ৬৯টি প্রতিষ্ঠান/প্রকল্পকে সম্মানিত করার পাশাপাশি ৩৭ জন বিচারক, আয়োজক কমিটির সদস্যদের সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ