বিয়ের প্রথম ৬ মাসে মাত্র ২১ দিন একসঙ্গে কাটিয়েছেন বিরুষ্কা!

  হিন্দুস্তান টাইমস

০২ জুলাই ২০২০, ১১:১০ | অনলাইন সংস্করণ

বিরাট কোহলির ব্যস্ত শেডিউলের জেরে একসঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ একেবারেই পান না বিরুষ্কা। নায়িকার কথায় যখন একে অপরের কাজের জায়গায় তাঁরা হাজির হন,সেটা কোনও হলিডে নয় বরং একে অপরকে এক ঝলক দেখা বা একসঙ্গে একবেলার খাবার খাওয়া মাত্র। 

ভোগ ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে অনুষ্কা বলেন, মানুষজন ভাবে যখন আমি বিরাটের সঙ্গে দেখা করতে অন্য দেশে যাই, বা ও আমার কাজের জায়গায় আসে-সেটা হলিডে কিন্তু এক্কেবারেই তেমনটা নয়।কারণ একজন মানুষ সবসময়ই কাজে ব্যস্ত।শুনলে অবাক হবেন আমাদের বিয়ের প্রথম ছয়মাসে একসঙ্গে মাত্র ২১ দিন কাটিয়েছি আমরা। হ্যাঁ, আমি সত্যি হিসাব করে দেখেছি।তাই যখন আমি বিদেশে যাই,ওর কোনও ক্রিকেট ট্যুরে তখন হয়ত একবেলা খাবার টেবিলে আমাদের দেখা হয়-কিন্তু সেই সময়টুকুই আমাদের দুজনের জন্য মূল্যবান। 

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে ইতালির লেক কোমোতে রূপকথার বিয়ে সেরেছিলেন বিরাট-অনুষ্কা।

বিরাট জানান,তাঁর মনে হয় অনুষ্কাকে তিনি চিরকাল ধরে চেনেন।তাঁদের কানেকশন এতটাই মজবুত। কোহলির কথায়, আমরা প্রতিদিন একে অপরের ভালোবাসায় বাংচি,আমাদের সম্পর্কের আধারই হল ভালোবাসা। আমাদের মনে হয় আমরা কয়েক বছর ধরে নয়, একে অপরকে আজীবন ধরে চিনি’।

তাই এক কথায় লকডাউনটা অভিশাপের মধ্যেই আশীর্বাদ হয়ে নেমে এসেছে বিরুষ্কার জীবনে।বিয়ের পর একসঙ্গে এক লম্বা সময় কাটানোর সুযোগ এই প্রথম পাচ্ছেন তাঁরা। আর বিরুষ্কার ঘরবন্দি জীবনের নানান ঝলক ফ্যানেদের সঙ্গে ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে নিচ্ছেন তাঁরা। কখনও বিরাটের হেয়ার স্টাইলিস্ট অনুষ্কা,কখনও আবার মজাদার খেলায় মত্ত এই সেলেব দম্পতি। 

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে ইতালির লেক কোমোয় স্বপ্নের বিয়ে সারেন বিরাট-অনুষ্কা।তাঁদের এই সিক্রেট ওয়েডিংয়ের প্রথম ছবির দিকে তাকিয়ে ছিল গোটা দেশ। যখন এই ছবি প্রকাশ্যে আসে-বিরুষ্কা ভক্তদের হৃদস্পন্দন কিছু মূহূর্তের জন্য থমকে গিয়েছিল।

চলতি বছর মুক্তি পেয়েছে প্রযোজক অনুষ্কার দুটি প্রজেক্ট-আমাজন প্রাইমের ওয়েব সিরিজ পাতাল লোক এবং নেটফ্লিক্স অরিজিন্যাস ফিল্ম বুলবুল। ওটিটি প্ল্যাটফর্মে অনুষ্কার দুটি কাজই প্রশংসা কুড়িয়েছে। প্রযোজক হিসাবে কাজ জারি থাকলেও জিরোর পর থেকে রুপোলি পর্দা থেকে গায়েব রয়েছেন অনুষ্কা। 

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ