সিরিজ জয়ে আত্মবিশ্বাসী উইন্ডিজ ক্রিকেটাররা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ জুন ২০২০, ১৭:৫১

সিনিয়র তিন ক্রিকেটার না থাকলেও, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ে আত্মবিশ্বাসী উইন্ডিজ ক্রিকেটাররা। করোনাভাইরাসের আতঙ্ক মাঠের ক্রিকেটে প্রভাব ফেলবে না। এমনটাই মত উইন্ডিজের প্রধান নির্বাচক রজার হারপারের। এদিকে, ক্যারিবিয়ানদের দলে প্রথমবারের মতো সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত পেসার চেমার হোল্ডার।

আলোচনার টেবিল ঘুরে বাস্তবতার মুখ দেখতে যাচ্ছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ। বৈশ্বিক অঙ্গনে মাঠের ক্রিকেটের খরা কাটছে। সিরিজের সবকিছুই এখন চূড়ান্ত।

মূল দলে ১৪ জন এবং বিকল্প হিসেবে আরও ১১ জনকে রেখে দল ঘোষণা করেছে উইন্ডিজরা। সেখানেও আছে চমক। তিন শীর্ষ ক্রিকেটার ড্যারেন ব্রাভো, শিমরন হেইটমায়ার এবং কিমো পল খেলতে আগ্রহী নন এই সিরিজে। ফলে তাদের পরিবর্তে দলে আনা হয়েছে বেশকিছু আনকোরা মুখ। তাছাড়া আছে করোনা আতঙ্ক। দীর্ঘদিন মাঠে না নামায় জং পড়া শরীর। সবকিছুর পরও দলটিকে নিয়ে বেশ উচ্চাকাঙ্ক্ষী ক্যারিবিয়ান প্রধান নির্বাচক।

উইন্ডিজ ক্রিকেট প্রধান নির্বাচক রজার হারপার বলেন, আমার মনে হয় দলটা তরুণ এবং বেশ উজ্জীবিত। এদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি ক্রিকেটার গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে খেলেছে। আমরা সবাই জানি, ইংল্যান্ড কতোটা শক্তিশালী দল। তার ওপর ওরা খেলবে ঘরের মাটিতে। যাই হোক, আমার মনে হয় ট্রফিটা জেতার মতো সামর্থ্য ছেলেদের আছে। সে জন্যে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলতে হবে।


যে ক'জন নতুন মুখ ডাক পেয়েছেন এই সিরিজে তাদের একজন চিমার হোল্ডার। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপানো হয়নি এখনো। তারপরও অনেকেই তার মাঝে খুঁজে পান কিংবদন্তী কোর্টলি অ্যামব্রোসের ছায়া। এই তরুণও প্রস্তুত নিজের সর্বোচ্চ উজাড় করে দিতে।

উইন্ডিজ পেসার চেমার হোল্ডার বলেন, আমি তো বটেই, আমার পরিবারের সবাই খুব উচ্ছ্বসিত। ক্যারিবিয়ান দলের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ অনেকেই পায়না। নিজেকে গর্বিত মনে হচ্ছে। মাঠে নামার সুযোগ পাবো কিনা এখনো জানিনা। তবে নিজেকে সর্বোচ্চ প্রস্তুত করছি। খেলতে পারলে সামর্থ্যের সবটুকু উজাড় করে দিবো।

তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে ৮ জুন ইংল্যান্ডে পাড়ি জমাবে উইন্ডিজ ক্রিকেটাররা। এক মাসের কোয়ারেন্টিন শেষে ৮ জুলাই সিরিজের প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হবে দু'দল।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ