‘গলা কাটা’ উদযাপন : বিপাকে পাক ক্রিকেটার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:২১

অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ লিগে (বিবিএল) এবারের বড় চমক পাকিস্তানি ক্রিকেটার হারিস রউফ। প্রথমবারের মতো বিবিএল খেলতে এসে তিন ম্যাচেই নিয়েছেন ১০ উইকেট। মেলবোর্ন স্টারসে ডেল স্টেইনের বদলি হিসেবে সুযোগ পান এই পাকিস্তানি পেসার। দারুণ ফর্মে থাকা এই ক্রিকেটারকে পাকিস্তানের জার্সিতে অভিষেক করানোর পরিকল্পনাও করছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তবে সম্প্রতি উইকেট পেয়ে দৃষ্টিকটু উদযাপন করে সমালোচনার শিকার হন এই পেসার। পরবর্তীতে ক্ষমাও চেয়েছেন হারিস রউফ।

গত বৃহস্পতিবার বিবিএলে সিডনি থান্ডারের বিপক্ষে মেলবোর্ন স্টারস ৩ উইকেটে জয় পায়। ম্যাচে সিডনি থান্ডার আগে ব্যাট করে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান সংগ্রহ করে। যার মধ্যে ৪ ওভারে ২৪ রানে ৩ উইকেট নেন রউফ। থান্ডারের ড্যানিয়েল স্যামসকে আউট করে ‘গলা কাটা’ উদযাপন করেন রউফ। ম্যাচে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করা রউফের প্রশংসা করলেও উদযাপনটি নিয়ে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

অস্ট্রেলিয়ার রাগবি খেলোয়াড় ড্যারিল ব্রোমান বলেন, ‘প্রতিবার উইকেট নিয়ে রউফের গলা কাটা উদযাপন কি আমাদের দেখতে হবে! অবশ্যই সে দুর্দান্ত একজন বোলার। কিন্তু উইকেট পেয়ে তার উদযাপন জঘন্য।’ পাকিস্তানের এক ক্রিকেট সমর্থক বলেন, ‘ক্রিকেট মাঠে গলা কাটা উদযাপনের কোনো জায়গা থাকার কথা নয়।’ অস্ট্রেলিয়ার এক সমর্থক বলেন, ‘বিবিএল সব খেলোয়াড়ের জন্য পরিবারের মতো। সেখানে এমন উদযাপন অযৌক্তিক। এজন্য তার জরিমানা করা উচিত।’

২৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার এমন উদযাপনের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) লাহোর কালান্দার্সের হয়ে প্রথম সুযোগ পান রউফ। কালান্দার্স কোচ আকিব জাভেদের মাধ্যমে সবার কাছে ক্ষমা চান এই ক্রিকেটার। হারিস রউফের ক্ষমা চাওয়া নিয়ে পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার আকিব জাবেদ বলেন, ‘হারিসের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। হারিস তার অযাচিত উদযাপনের জন্য ক্ষমা চেয়েছে। আমি তাকে বলেছি, এমন উদযাপন ক্রিকেটের মোরাল কোডের বিরোধিতা করে। ভবিষ্যতে আর কোনো খেলায় সে এমন উদযাপন করবে না বলে জানিয়েছে।’

গত বছর পাকিস্তানের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয় হারিস রউফের। তবে সবচেয়ে আলোচনায় আসেন চলতি বিগ ব্যাশ লিগে অসাধারণ পারফরম্যান্স করে। এবারের বিবিএলে তিন ম্যাচে ১২ ওভারে ৭১ রানের বিনিময়ে ১০ উইকেট নেন হারিস রউফ। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এই ক্রিকেটারকে পাকিস্তানের হয়ে মাঠে নামাতে মরিয়া ওয়াকার ইউনুস ও মিসবাহ-উল-হক। পাকিস্তানের বোলিং কোচ ওয়াকার বলেন, ‘আমি আর মিসবাহ হারিসের বিষয়ে কথা বলেছি। আমরা শীঘ্রই তাকে পাকিস্তানের পেস আক্রমণে যুক্ত করতে চাই।’

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ