শেখ রাসেলের সঙ্গে হেরে ভেস্তে গেল বসুন্ধরার সব পরিকল্পনা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ জুলাই ২০১৯, ১০:৪৯

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ও নবাগত বসুন্ধরা কিংসের মধ্যকার ম্যাচ ছিল কিংসের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এ ম্যাচে জিতলে লিগ শিরোপা নিজেদের করে নিতে পারতো কিংস। এমন সমীকরণে মাঠেও নামে কিংস। আগেভাগেই জয় নিশ্চিত ভেবে উৎসবের পরিকল্পনায় করে ফেলে নবাগত অস্কার ব্রুজানের দল। কিন্তু তাদের সব পরিকল্পনা ধুলোর সঙ্গে মিশিয়ে দেয় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে শনিবার (২০ জুলাই) স্বাগতিক শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সঙ্গে ০-১ গোলে পরাস্ত হয় শিরোপা জয়ের রেসে থাকা বসুন্ধরা কিংসের।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের অধিকাংশ গ্যালারিতে ছিল চলতি মৌসুমে প্রথমবার প্রিমিয়ার লিগে অংশ নেওয়া বসুন্ধরা কিংসের দর্শকের দখলে। প্রিয় দলের জার্সি গায়ে, ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে উৎসাহ যুগিয়েছেন দলকে। পুরো টুর্নামেন্ট ভালো খেললেও সিলেটে এসে হোঁচট খেল কিংস। আজও পুরো ম্যাচে নিজেদের আধিপত্য দেখালেও জয়হীন হয়ে মাঠ ছাড়ে কিংসরা।

উজবেক ফরোয়ার্ড আজিজভ আলিশারের গোলে ম্যাচের ৫২তম মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিক শেখ রাসেল। এই গোলই ম্যাচের ব্যবধান গড়ে দেয়। শেষ পর্যন্ত ১ গোলের লিড নিয়ে পুরো সময় শেষ করে সাইফুল বারী টিটুর দল। তবে বেশ বেগ পেতে হয়েছে তাদের। দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে বেশ কয়েকবার রাসেল রক্ষণকে পরীক্ষায় রাখে কিংসরা। আক্রমণ সামলাতে ব্যস্ত থাকে বিপলু-বিশ্বনাথদের। তবে কাজের কাজ হয় নি। গোল জালে জড়াতে ব্যর্থ মতিন-সুফিলরা। তবে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামেন সিলেটের দুই লকাল বয় মতিন মিয়া ও মাহবুবুর রহমান সুফিল। তারা বেশ কয়েকটি আক্রমণ করলেও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পাননি। ফলে নিজেদের মাঠে ০-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে শেখ রাসেল। আর শিরোপা জয়ের জন্য নবাগত কিংসের জন্য অপেক্ষা বাড়িয়ে দেয়।

এর আগে বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে প্রথমার্ধে কোনো গোল পায়নি শেখ রাসেল। ৪-৩-৩ ফরমেশনে খেলা শেখ রাসেলের ডিফেন্সকে পরাস্ত করে সমতায় ফেরা হয়নি ৪-৪-২ ফরমেশনে খেলা বসুন্ধরা কিংসের।

মৌসুমের শেষ ৩ ম্যাচে চাই মাত্র এক জয় অথবা ৩ পয়েন্ট, তাহলেই গড়া হয়ে যাবে অনন্য এক ইতিহাস। বাংলাদেশের পেশাদার ফুটবলের ইতিহাসে এর আগে কোনো ক্লাবই নিজেদের অভিষেক আসরেই দুই শিরোপা জেতার স্বাদ পায়নি। আর মাত্র ৩ পয়েন্ট পেলেই সেই অনন্য কীর্তি গড়বে অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ