মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার মধুর ‘প্রতিশোধ’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ মার্চ ২০১৯, ১১:৪৫

চ্যাম্পিয়নস লিগে লিওনেল মেসির জাদুকরী ফর্ম টের পাওয়া গিয়েছিল। লা লিগায় সেই জাদুকরী ফর্মটাকে তিনি নিয়ে গেলেন আরও বিধ্বংসীরূপে। তার হ্যাটট্রিকে রিয়াল বেতিসকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করে মধুর ‘প্রতিশোধ’ নিয়েছে বার্সেলোনা।  কারণ গত নভেম্বরে এই বেতিসের কাছেই ৪-৩ গোলে হার মেনেছিল কাতালানরা।  

রবিবার রাতে বেতিসের মাঠে আক্রমণ আর পাল্টা-আক্রমণে শুরু থেকেই জমে ওঠে ম্যাচ। ১৩ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত বেতিস। কিন্তু সতীর্থের ক্রসে গোলের সামনে থেকেও পা ছোঁয়াতে পারেননি ফরোয়ার্ড হেসে রদ্রিগেজ।

১৮ মিনিটে ২০ গজ দূর থেকে দুর্দান্ত এক ফ্রি-কিকে বার্সাকে লিড এনে দেন মেসি। ডি বক্সের সামনে থেকে মেসির বাঁ পায়ের বাঁকানো শট বাঁ কর্নার দিয়ে জাল খুঁজে নেয়। চলতি মৌসুমে ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগে বক্সের বাইরে থেকে (৭) ও সরাসরি ফ্রি-কিকে (৪) সবচেয়ে বেশি গোল এখন আর্জেন্টাইন তারকার।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে বার্সার ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। লুইস সুয়ারেজকে পাস দিয়ে ডি বক্সে ঢুকে পড়েন মেসি। দারুণ এক ব্যাকহিলে মেসিকে খুঁজে নেন সুয়ারেজ। পেছনে লেগে থাকা তিনজন ডিফেন্ডারকে কোনো সুযোগ না দিয়ে বাঁ পায়ের টোকায় বল জালে পাঠান ৩১ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড।

বিরতির পর ৬৩ মিনিটে গোল পেয়ে যান সুয়ারেজও। নিজেদের অর্ধ থেকে উঁচু করে বল বাড়িয়েছিলেন জেরার্ড পিকে। বল ধরে এগিয়ে গিয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার। লা লিগার ইতিহাসে উরুগুয়াইনদের মধ্যে দিয়েগো ফোরলানের সর্বোচ্চ ১২৮ গোলের রেকর্ডে ভাগ বসালেন সুয়ারেজ।

৮২ মিনিটে বেতিসের হয়ে একটি গোল শোধ করেন লোরেন মোরন। তিন মিনিট পরই হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন মেসি। ডি বক্সের সামনে থেকে মেসি বাঁ প্রান্তে পাস দেন ইভান রাকিটিচকে। ক্রোয়াট মিডফিল্ডার আবার বল বাড়ান মেসিকে। দারুণ এক চিপে গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে পাঠান পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার।

চলতি আসরে লা লিগায় এটি মেসির ২৯তম এবং সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩৯তম গোল। আর লিগে এটি মেসির ৩৩তম এবং ক্যারিয়ারে ৫১তম হ্যাটট্রিক। স্পেনের শীর্ষ লিগে মেসির চেয়ে বেশি হ্যাটট্রিক আছে কেবল সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর (৩৪)।

২৮ ম্যাচে ২০ জয় এবং ২ ড্রয়ে লা লিগার শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট বেড়ে হলো ৬৬। সমান ম্যাচে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ও রিয়াল মাদ্রিদ ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ