ইমরুলের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৭১

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:২০ | আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৩১

মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ইমরুলের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহ পেয়েছে বাংলাদেশ।  নির্ধারিত ৫০ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ সংগ্রহ করেছে ২৭১ রান।  ফলে জয়ের জন্য জিম্বাবুয়ের প্রয়োজন ২৭২ রান।

টাইগার ওপেনার ইমরুল কায়েস করেছেন ১৪৪ রান। এই রান করতে তিনি ১৪০ বল খেলেন। চার মারেন ১৩টি। ছক্কা হাঁকান ছয়টি। ওয়ানডে ক্রিকেটে ইমরুল কায়েসের এটি সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। এর আগে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রান ছিল ১১২ রান। এদিন ইমরুল কায়েস ওপেনিংয়ে নেমে ৪৯তম ওভারে আউট হন।  

ওয়ানডে ক্রিকেটে ইমরুল কায়েসের এটি তৃতীয় সেঞ্চুরি। তিনি সর্বশেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন ২০১৬ সালের ৭ অক্টোবর। মিরপুরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওই ম্যাচে ১১২ রান করেছিলেন তিনি। ২০১০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন কায়েস।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই জিম্বাবুইয়ান বোলারদের সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছিল বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের, সেটি উইকেটের বৈচিত্রের কারণেই।  ষষ্ঠ ওভারের প্রথম বলে দলীয় ১৬ রানে টেন্ডাই চাতারার ডেলিভারিকে সেফাস ঝুয়ায়োর ক্যাচে পরিণত করে সাজঘরে ফেরেন লিটন দাস। তার আগে ১৪ বলের মোকাবেলায় তার ব্যাটে থেকে আসে মাত্র ৪ রান।  

লিটনের বিদায়ের পর অভিষিক্ত ফজলে রাব্বি মাহমুদ আসেন ক্রিজে। তবে নিজের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে তিনি সাজঘরে ফেরেন শূন্য রানে।  নিজের মোকাবেলা করা চতুর্থ বলে এবং ষষ্ঠ ওভারের ষষ্ঠ বলে তিনি ক্যাচ তুলে দেন উইকেটের পেছনে থাকা ব্রেন্ডন টেলরের হাতে। দলীয় ১৭ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পরে যায় বাংলাদেশ।

তবে চাপ সামলানোর চেষ্টা করেন ওপেনার ইমরুল কায়েস ও মুশফিকুর রহিম। যদি দলীয় ৬৬ রানে হারাতে হয় মুশফিককেও।  ২০ বলে ১৫ রান করে বেন্ডন মাভুতার ডেলিভারিকে উইকেটরক্ষক ব্রেন্ডন টেলরের হাতে তুলে দেন তিনি।  মুশফিকের বিদায়ের পরও খেই হারায়নি ইমরুলের ব্যাট।  

দেখে শুনে খেলতে থাকা এই ব্যাটসম্যান ৬৪ বলে তুলে নেন ফিফটি।  কিন্তু তাকে যোগ্য সঙ্গ দিতে পারছেন না কেউই।  মুশফিকের বিদায়ের পর ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিয়েও মোহাম্মদ মিঠুন (৪০ বলে ৩৭), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (০) ও মেহেদী হাসান মিরাজ (১) আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন।

উল্লেখ্য, এটি দুই দলের মধ্যকার ৭০তম আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ। এর আগে ৬৯টি ম্যাচ খেলে ৪১ ওয়ানডেতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ, আর বাকি ২৮ টি ম্যাচে জয়ী হয়েছে জিম্বাবুয়ে।

এবিএন/রাজ্জাক/জসিম/এআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ