জুভেন্টাসের জয়ের দিনে দিবালার চোট

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৫

দুই গোলে এগিয়ে গিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া ইউভেন্তুস বিরতির পর কিছুটা ছন্দ হারাল। দুবার ব্যবধান কমিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা জাগাল সাম্পদোরিয়া। তবে শেষ পর্যন্ত পেরে উঠল না তারা। সেরি আয় টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিল মাস্সিমিলিয়ানো আল্লেগ্রির দল। আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে রবিবার লিগ ম্যাচে ৩-২ গোলে জিতেছে জুভেন্টাস।

জয় পেলেও আল্লেগ্রির কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলতে পারে দিবালার চোট। দলের প্রথম গোল করার পর অস্বস্তি অনুভব করায় কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়েন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। আগামী বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে চেলসির বিপক্ষে ম্যাচে তাকে নিয়ে জেগেছে শঙ্কা।

ঘরের মাঠে আত্মবিশ্বাসী শুরু করা জুভেন্টাস এগিয়ে যায় ১০ম মিনিটে। ডি-বক্সের বাইরে থেকে লোকাতেল্লির শট প্রতিপক্ষের একজনের পায়ে লেগে ফেরার পর বাঁ পায়ের নিচু শটে ঠিকানা খুঁজে নেন দিবালা। দুই মিনিট পর ডি-বক্সের বাইরে থেকে ফেদেরিকো চিয়েসার শট যায় বাইরে দিয়ে। পরের মিনিটে ওয়ান-অন-ওয়ানে গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে পারেননি আলভারো মোরাতা। এর পরই ২১তম মিনিটে পেশিতে টান লাগায় মাঠ ছাড়েন দিবালা।

৪৩তম মিনিটে সফল স্পট-কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডিফেন্ডার বোনুচ্চি। ডি-বক্সে চিয়েসার শট প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারের হাতে লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। পরের মিনিটেই ব্যবধান কমায় সাম্পদোরিয়া। সতীর্থের ক্রসে কাছ থেকে হেডে গোলটি করেন জাপানিজ ডিফেন্ডার মায়া ইয়োশিদা।

৫৭তম মিনিটে ব্যবধান আবার বাড়িয়ে নেয় স্বাগতিকরা। ডি-বক্সে কয়েক জনকে কাটিয়ে শট নিতে পারেননি চিয়েসা, সফরকারীরাও পারেনি বল ক্লিয়ার করতে। বাঁ দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে বদলি নামা কুলুসেভস্কির পাসে ফাঁকা জালে বল পাঠান লোকাতেল্লি।

৭৪তম মিনিটে ব্যবধান বাড়তে পারত আরও। ডি-বক্সে ঢুকে রদ্রিগো বেন্তানকুরের জোরালো শটে এক হাতে ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল পাঠান গোলরক্ষক।

নির্ধারিত সময়ের সাত মিনিট বাকি থাকতে স্কোরলাইন ৩-২ করে সফরকারীরা। সতীর্থের বাড়ানো বলে ডি-বক্সের ভেতর থেকে জোরালো শটে গোলটি করেন ইতালিয়ান মিডফিল্ডার আন্তোনিও কান্দ্রেভা। বাকি সময়ে আর পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারেনি কোনো দলই।

ছয় ম্যাচে দুটি করে জয় ও ড্রয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে নবম স্থানে আছে জুভেন্টাস। ৫ পয়েন্ট নিয়ে ১৪তম স্থানে সাম্পদোরিয়া। তাদের সমান ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে এসি মিলান। ১৫ পয়েন্ট নিয়ে নাপোলি দুইয়ে, ১৪ পয়েন্ট নিয়ে শিরোপাধারী ইন্টার মিলান তিনে আছে। নাপোলি এক ম্যাচ কম খেলেছে।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm