আরব আমিরাতে কোয়ারেন্টাইনে টাইগাররা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:১৩

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী আরব আমিরাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে ৬ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে। তবে ওমানের বায়ো-বাবল থেকে সরাসরি চার্টার্ড ফ্লাইটে দুবাই গেলে কোয়ারেন্টাইন আইন শিথিল হতে পারে বলে মনে করেন বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী। এদিকে ইনজুরি পুনর্বাসনের অংশ হিসেবেই নেপালের এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগে খেলবেন তামিম ইকবাল, জানিয়েছেন চিকিৎসক। সেখানকার ফিডব্যাকের ওপরই নির্ভর করছে এই বাঁ-হাতির ভবিষ্যত।

কোয়ারেন্টাইন আর কোভিড-১৯, গত দেড় বছরের প্রতিদিনকার জীবনে সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত আর ব্যবহৃত শব্দযুগল। তবে বিশ্বব্যাপী ভ্যাক্সিনেশন শুরু হয়ে যাওয়ায়, কোভিড নিয়ে আলোচনা কমেছে কিছুটা কিন্তু কোয়ারেন্টিন এখনো প্রাসঙ্গিক যে কোনো ভ্রমণের ক্ষেত্রে।


আইসিসির টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসরও বাদ যাচ্ছে না এসব থেকে। সামনের মাস থেকেই ওমান এবং দুবাইয়ে ডেরা বসাবে পৃথিবির নানা প্রান্তের অসংখ্য ক্রিকেটার, স্টাফ, সংগঠক এবং কর্মকর্তারা। তাদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা বিবেচনায় সেখানেও থাকছে আলাদা আলাদা কোয়ারেন্টাইন প্রটোকল। এ সম্পর্কে দেবাশিষ চৌধুরী বলেন, 'ওমানে ফুল ভ্যাক্সিনেটেড থাকলে ফ্লাই করা যাবে। এরপর সেখানে গিয়ে নেগেটিভ সার্টিফিকেট হাতে পেলে থাকতে হবে ২৪ ঘন্টার কোয়ারেন্টাইনে। তবে দুবাইয়ে আইসিসি ৬ দিনের প্রটোকলে থাকতে বলেছে। যদিও বাবল টু বাবল ট্রান্সফার হলে সেটা শিথিল হতে পারে। আমরা ওমান থেকে চার্টার্ড ফ্লাইটে দুবাই গেলে সেটা আইসিসি বিবেচনা করবে বলেই মনে হচ্ছে।'

বিশ্বকাপের দলে নেই তামিম ইকবাল। তবে ইনজুরি থেকে সেরে উঠে শুরু করেছেন স্কিল ট্রেনিং। বিসিবির মেডিকেল বোর্ডের দাবি, পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবেই ওয়ানডে অধিনায়ক খেলবেন এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগে। দেবাশিষ চৌধুরীর ভাষ্য, 'তামিম গত কিছুদিন ধরে স্কিল নিয়ে কাজ করছে। পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে সে নেপালেই খেলবে। সেখানকার ফিডব্যাকের ওপর নির্ভর করবে পরবর্তীতে কি চিকিৎসা প্রয়োজন হবে তার।'
 
দীর্ঘদিন জাতীয় দলের সঙ্গে নেই পেসার আল আমিন হোসেন এবং হাসান মাহমুদ। ইনজুরি থেকে সারতে তাদেরও চলছিলো পুনর্বাসন। তবে, দুজনের ব্যপারে দুরকম খবর শোনালেন দেবাশিষ চৌধুরী। 'আল আমিন রিকভার করেছে। সে এনসিএলে খেলতে পারবে বলে আশা করছি। হাসানের সমস্যাটা ভিন্ন। তার স্ক্যানে কোনো সমস্যা পাওয়া যায়নি। আমরা তাকে বায়োকেমিক্যাল টেস্টের জন্য দেশের বাইরে পাঠাবো।'

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm