কুকের বিদায়ী ম্যাচে ইংল্যান্ডের জয়

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:৫৩

টেস্ট অভিষেকের নীল ক্যাপটা মাথায় দিয়ে মাঠে নামতে হবে না অ্যালিস্টার কুকের। সাদা জার্সিতে আর বাইশ গজ শাসন করবেন না এই ইংলিশ ওপেনার। দীর্ঘ এক যুগের ক্যারিয়ারের ইতি টেনে দিলেন ওভালে। এই ওপেনারের বিদায়কে রাঙিয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ড। ভারতের বিপক্ষে রোমাঞ্চকর টেস্ট ১১৮ রানে জিতে বিদায়ী উপহার দিয়েছে কুককে।

টেস্ট ক্রিকেটের আসল সৌন্দর্য ফুটে উঠেছিল লন্ডনের ম্যাচে। ইংলিশদের ছুড়ে দেওয়া ৪৬৪ রানের অসম্ভব লক্ষ্যের পেছনে দারুণভাবে ছুটেছে ভারত। লোকেশ রাহুল ও ঋষভ পন্থ সেঞ্চুরি করে কাঁপন ধরিয়েছিলেন ইংলিশদের বুকে। যদিও শেষ পর্যন্ত ৩৪৫ রানে অলআউট হয়ে ম্যাচ হেরেছে ভারত। তাই ৫ ম্যাচের সিরিজ আগেই জিতে নেওয়া ইংল্যান্ড মিশন শেষ করলো ৪-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে।

লক্ষ্য ৪৬৪ রান, জিততে হলে বিশ্বরেকর্ড গড়তে হতো ভারতকে। ২ রানে ৩ উইকেট হারানো দলটির জন্য ম্যাচ বাঁচানোর চিন্তা করাও তো কষ্টের ছিল। দলের ভীষণ বিপর্যয়ের মুখে হাল ধরলেন লোকেশ রাহুল। এর পর যোগ দিলেন ঋষভ পান্ত। এই যুগলের সেঞ্চুরিতে ভর করেই অসম্ভব কিছুর স্বপ্ন দেখছিল সফরকারীরা।

শুরুতে বড় ধাক্কা খাওয়া ভারত একটু সামলে উঠলেও ১২১ রানের মধ্যে ৫টি উইকেট হারিয়ে বসেছিল। সেখান থেকে অবিশ্বাস্য প্রতিরোধ রাহুল আর পান্তর। ষষ্ঠ উইকেটে তারা গড়েন ২০৪ রানের জুটি।

চাপের মুখে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তুলে নেন রাহুল। ক্যারিয়ারের প্রথম বড় উদযাপনটা সেঞ্চুরি দিয়েই করেন পান্তও। রাহুলের সঙ্গে তার জুটিটা রীতিমতো ঘাম ঝরাচ্ছিল ইংল্যান্ডের।

শেষপর্যন্ত দলকে সেই উৎকণ্ঠা থেকে মুক্তি দেন আদিল রশিদ। ১৪৯ রানে থাকা লোকেশ রাহুলকে বোল্ড করে সাজঘরের পথ দেখান এই লেগস্পিনার। এরপর ফিরিয়ে দেন আরেক সেঞ্চুরিয়ান পান্তকেও। ১১৪ রান করেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পাওয়া উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যান। শেষ সময়ে নতুন বলে ঝলক দেখান স্যাম কুরান। তুলে নেন ইশান্ত শর্মা আর রবীন্দ্র জাদেজাকে। সামিকে বোল্ড করে শেষটা করেন অ্যান্ডারসন।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ