রোনালদোকে ছাড়াই পর্তুগাল হারাল ইতালিকে

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:১৮

বিশ্রামে দলের সেরা তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, দলের সামনে উয়েফা নেশন্স লিগের চ্যালেঞ্জ। তাতে কী! রোনালদোকে ছাড়াও যে কম যায় না পর্তুগাল। দিন দুয়েক আগে বিশ্বকাপ রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ড্র করার পর সোমবার রাতে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালিকে হারিয়েই দিয়েছে রোনালদোবিহীন পর্তুগাল।

আন্দ্রে সিলভার একমাত্র গোলে উয়েফা নেশন্স লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে ফার্নান্দো সান্তোসের শিষ্যরা। পর্তুগালের মাঠে খেলতে এসে স্বাগতিকদের আক্রমণ সামাল দিতেই হিমশিম খেতে হয়েছে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালিকে।

ম্যাচের শুরু থেকে ইতালিকে চেপে ধরা ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল প্রথম ভালো সুযোগ পায় ১৪ মিনিটে। ইতালি বাজে রক্ষণের মাশুল দিচ্ছিল পিছিয়ে পড়ে। তবে বের্নার্দো সিলভার শট কোনোমতে ফিরিয়ে দেন এক ডিফেন্ডার।   ৭ মিনিট পর আবার সুযোগ আসে স্বাগতিকদের সামনে। এবারও দায় অতিথিদের রক্ষণের। মাত্তিয়া কালদারা নিজেদের অর্ধে বল হারালে পেয়ে যান আন্দ্রে সিলভা। তবে গোলরক্ষক জানলুইজি দোন্নারুম্মা বরাবর শট নিয়ে দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করেন এসি মিলান থেকে ধারে সেভিয়ায় খেলা এই স্ট্রাইকার।   

২৭তম মিনিটে ব্রুমার হেড বিপদমুক্ত করতে গিয়ে দোন্নারুম্মা তালগোল পাকালে সুযোগ এসে যায় বের্নার্দো সিলভার সামনে। তার গড়ানো শট গোল লাইন থেকে ফিরিয়ে ইতালির ত্রাতা আলেস্সিও রোমাগনোলি। ৫ মিনিট পর অল্পের জন্য বেঁচে যায় ইতালি। মারিও রুইয়ের শট অতিথিদের ব্রায়ান ক্রিস্তিয়ানের পা ছুঁয়ে ক্রসবার লেগে ফিরে। ৩৬তম মিনিটে উইলিয়াম কারভালিয়োর বাঁকানো শট একটুর জন্য লক্ষ্যে থাকেনি।


 
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এগিয়ে যায় পর্তুগাল। উইঙ্গার ব্রুমার কাছ থেকে বল পেয়ে বাঁকানো শটে জাল খুঁজে নেন আন্দ্রে সিলভা। ৫৪তম মিনিটে দোন্নারুম্মার দৃঢ়তায় ব্যবধান বাড়াতে পারেননি পর্তুগাল। বের্নার্দো সিলভার শটে ঝাঁপিয়ে কোনোমতে রক্ষা করেন এসি মিলানের গোলরক্ষক। ৬৮তম মিনিটে পিস্সির বুলেট গতির শট দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে নেন দোন্নারুম্মা।
 
৮৬তম মিনিটে আবার ইতালির ত্রাতা গোলরক্ষক। রেনাতো সানচেসের চেষ্টা দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন তিনি। 
 
গোলশোধের তেমন কোনো ভালো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে বাজে সময় কাটানো ইতালি। নেশন্স লিগে ২ ম্যাচে ১ পয়েন্ট নিয়ে নিজেদের গ্রুপে তিন নম্বরে আছে রবের্তো মানচিনির শিষ্যরা। 
 
এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ