ভারতের জয়ের নায়ক মোহাম্মদ সিরাজ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৪৩

২০শে নভেম্বর ২০২০, এদিন মারা যান মোহাম্মদ সিরাজের বাবা। জাতীয় দলের ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম অস্ট্রেলিয়া সফর, কোয়ারেন্টিনের নানা ধকল এসব ঝক্কির কারণে বাবাকে শেষবার দেখা হয়নি দেশে ফিরে।

ঠিক ২ মাস পর সিরাজ ভারতের ক্রিকেট দলের নায়ক। গ্যাবায় অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় ইনিংসে একে একে ফিরিয়েছেন স্মিথ, ল্যাবুশেইন, ম্যাথু ওয়েডদের।

পাঁচ উইকেট নেন তিনি। তার হাত ধরেই ভারতে জয়ের একটা সম্ভাবনা দেখতে পায় চতুর্থ দিন থেকে। ক্রিকেট বিশ্বের বড় বড় নামগুলো সিরাজকে অভিবাদন জানায়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার ইয়ান বিশপ ট্ইুট করেন, "বাবা মারা যাওয়ার ঘটনায় কোনো সান্ত্বনা থাকুক বা না থাকুক, অস্ট্রেলিয়ায় থাকা অবস্থায় বাবার মৃত্যু, তারপর সিরাজের অস্ট্রেলিয়া রয়ে যাওয়া। শেষ পর্যন্ত টেস্ট ক্রিকেটের প্রথম পাঁচ উইকেট প্রাপ্তি, সবকিছু মিলিয়ে সিরাজের জন্য খুশি।"

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ক্রিকেটার টম মুডি লিখেছেন, "গত কয়েক মাসে অনেক কিছু গেল সিরাজের ওপর। পাঁচটা উইকেট তার প্রাপ্য।"

ভারতের ক্রিকেট বিশ্লেষক আকাশ চোপড়া লিখেছেন, "বাবা হারিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়া থেকে গেছেন, বর্ণবাদী মন্তব্য শুনেছেন, কিন্তু কিছুই তার ওপর প্রভাব ফেলেনি। নিজের ব্যক্তিগত তৃতীয় টেস্টেই পেস অ্যাটাকের নেতা হয়েছেন। পাঁচ উইকেট নিয়েছেন। সিরাজের জন্য ভালোবাসা ও সম্মান।"

থমাস মুলার ক্রিকেটের খোঁজ রাখেন?

থমাস মুলার যে ক্রিকেট খেলার খবর রাখেন এই কথা কজন জানতো গ্যাবা টেস্টের আগে? ভারত অস্ট্রেলিয়াকে গ্যাবা টেস্টে হারানোর পর টুইট করে ভারতকে শুভেচ্ছা জানান এই জার্মান বিশ্বকাপজয়ী ফুটবলার।

ভিরাট কোহলির সাথে হ্যারি কেইনের ভালো সম্পর্কের ব্যাপারটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আগেই দেখা গেছে।
তাই সেটা দেখে খুব একটা অবাক হননি নেটিজেনরা। অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মধ্যকার চার ম্যাচের এই টেস্ট সিরিজটি পুরোটা সময় ধরেই আলোচনায় ছিল।

অ্যাডেলেইডে গোলাপী বলে ৩৬ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে ভারতের মেলবোর্ন টেস্ট জয়, সিডনি টেস্ট ড্র এবং শেষ পর্যন্ত ব্রিসবেনে রেকর্ড ভাঙ্গা জয় দিয়ে শেষ হয়েছে এই সিরিজ।

রোনালদোর গোল রেকর্ড নিয়ে সংশয়

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো গত রাতে ক্যারিয়ারের ৭৬০তম গোলটি করেছেন। ইটালিয়ান সুপার কাপে জুভেন্টাস নাপোলির সাথে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে।

রোনালদো স্পোটিং লিসবনের হয়ে ৫টি গোল করেছেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ১১৮টি গোল করেছেন।

রেয়াল মাদ্রিদের হয়ে ৪৫০টি গোল করেছেন। জুভেন্টাসের হয়ে ৮৫টি গোল করেছেন। পর্তুগালের হয়ে ১০২টি গোল করেছেন।

কিন্তু এটাই বিশ্ব ফুটবলে পেশাদার কেরিয়ারে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড কি না তা নিয়ে সংশয় আছে। স্পোর্ট সকার স্ট্যাটিকটিক্স ফাউন্ডেশনের একটি তালিকায় দেখা গেছে জোসেফ বিকানের গোল সংখ্যা ৮০৫টি।

তবে এই গোলের মধ্যে অপেশাদার দল ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নয় এমন খেলাও আছে। যেখানে তার গোল দাঁড়ায় ৭৫৯টি।

আবার পেলে ও রোমারিওর গোল সংখ্যা নিয়েও আছে সংশয় যেখানে দেখা গেছে- ব্রাজিলের এই দুই ফুটবলারের এক হাজারের বেশি গোল আছে বলে দাবি করছে।

তাই রোনালদোর রেকর্ড ঠিক সার্বজনীন স্বীকৃত হচ্ছে না। রোনালদো নিজেও নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে কোনো বার্তা দেননি।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ