ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ শুরু, মাঠে ফিরেছে দর্শক

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১১:২৯

অধিনায়ক হিসেবে আইসিসির কোনো টুর্নামেন্ট জিততে পারেননি বিরাট কোহলি। আবার রেকর্ড বলে ব্যাটসম্যান হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বড় ভূমিকাও থাকে না তার। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ বলে দিয়েছেন, ‘একদিনের ক্রিকেটে সম্ভত সর্বকালের সেরা কোহলি। সামগ্রিক রেকর্ড বলে সে এক ও অদ্বিতীয়। ব্যাটিংয়ে তেমন কোনও দুর্বলতা নেই। ওকে তাই দ্রুত ফেরানোর কথা মাথায় রাখতে হবে আমাদের।’

ফিঞ্চের বক্তব্য একটা কৌশল হতে পারে- প্রতিপক্ষের সেরা ব্যাটসম্যানকে প্রশংসায় ভাসিয়ে দিয়ে উল্টো চাপে ফেলে দাও। আবার এমনটাও হতে পারে আইপিএলের দল রয়্যাল চ্যাঞ্জোর্স ব্যাঙ্গালোর অধিনায়কের সত্যিকারের গুণমুগ্ধ ফিঞ্চ।

তবে সত্যি যেটাই হোক, শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে সিডনিতে শুরু হওয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভীষণ চাপে বিরাট কোহলি। সহ-অধিনায়ক ও ওপেনার রোহিত শর্মা না থাকায় বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে ব্যাট করতে হবে তাকে। প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস ও অ্যাডাম জাম্পাদের বোলিং সামলে জয়ের নৌকাটিকে তীরে ভেড়াতে তাকেই রাখতে হবে অগ্রণী ভূমিকা।

দলীয় সমন্বয় নিয়ে একরাশ প্রশ্ন আছে ভারতীয় দলে। চোট সারেনি বলে ‘হিটম্যান’ শিখর ধাওয়ান নেই। শিখর ধাওয়ানের সঙ্গী হয়ে কে নামবেন ওপেনিংয়ে? মায়াঙ্ক আগরওয়াল? আইপিএলের ফর্ম যদি আগরওয়াল এখানে টেনে আনতে পারেন, ভালো কিছু হতেই পারে। রোহিতের অনুপস্থিতিতে লোকেশ রাহুলের কাঁধে তিন দায়িত্ব- গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান, উইকেটকিপার এবং সহ-অধিনায়ক। তিনদিক সামলে কতটা সফল হতে পারেন রাহুল সেটিই এখন দেখার। গত বিশ্বকাপের আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার দোড়গোড়ায় হার্দিক পান্ডিয়া। আসলেই খেলবেন তিনি?

তবে এ নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই যে প্রায় ৮ মাস পর আবার অস্ট্রেলিয়ায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরছে এবং দর্শকের সামনেই। সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড (এসসিজি) দর্শক ধারণক্ষমতার ৫০ শতাংশ টিকিট ছাড়ার অনুমতি পেয়েছে। সুতরাং সর্বশেষ গত মার্চ মাসে এখানে যেমন অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের প্রাথমিক পর্যায়ে দর্শকশূন্য স্টেডিয়াম দেখেছিল, আর ডুবে গিয়েছিল অদ্ভুত স্তব্ধতায়, সেই দৃশ্যপট থাকবে না।

আট মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দর্শক ফিরছে আর আট মাস পর ভারত ফিরছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। এটাই তাদের দুই মাসের লম্বা অস্ট্রেলিয়া সফরের সূচনাবিন্দু। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের পর রয়েছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ, তারপর চার ম্যাচের বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি টেস্ট সিরিজ। সাদা বলের সিরিজটা দুই দলের জন্য আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি সিরিজ, আর টেস্ট সিরিজটা চলমান বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ওঠার দৌড়ে শীর্ষে থাকা দুই দলের আধিপত্য বিস্তারের সুযোগ।

এসসিজির উইকেট সাম্প্রতিক ঐতিহ্য ধরে রাখতে পারলে শুক্রবার দিবারাত্রির এ ম্যাচেও হবে রান-উৎসব। প্রথমে ব্যাট করা দল এখানে জিতেছে সর্বশেষ ৭ ম্যাচের ৬টিতেই, প্রথম ইনিংসে গড়ে ৩১২ রান উঠেছে। তবে মজার তথ্য, অস্ট্রেলিয়ায় কোহলি ৫০.১৭ গড়ে ১১৫৪ রান করলেও সিডনিতে ভয়াবহরকম ব্যর্থ এক ব্যাটসম্যান। এখানে পাঁচ ইনিংসে মোট ২১ রান করেছেন তিনি, সর্বোচ্চ স্কোর ৯। ভারতের রেকর্ডও এখানে খারাপ, ১৪ হারের বিপরীতে জয় মাত্র ২টি।

এই রেকর্ড কি আজ বদলে দিতে পারবে ভারত?

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ