স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি জাতির পিতাকে হত্যা করেছে : প্রধানমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৪:১২ | আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:৪৯

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আন্দোলন-সংগ্রামের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হয়েছে। কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব মেনে নিতে পারেনি। ফলে তারা জাতির পিতাকে হত্যা করেছে।

তিনি আজ ০১ সেপ্টেম্বর (শনিবার) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রোকেয়া হলে ৭ মার্চ ভবন উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ যতটুকু অর্জন সবটুকু বঙ্গবন্ধুর শেখ মজিবুর রহমানের। আজ জাতির পিতা আমাদের মাঝে নেই। আমার তার রেখে যাওয়া স্বপ্ন ও আদর্শকে সামনে নিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করছি।

তিনি বলেন, আমরা মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে কাজ করছি। দরিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছি। জনগণকে উন্নত জীবন দেব, খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবো। রাজনৈতিক নেতা হিসেবে এটা আমাদের অঙ্গীকার। আর এই অঙ্গীকার আমাদের পূরণ করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন,‘ক্ষমতা আমার কাছে কোনো ভোগের বস্তু না, ক্ষমতা হচ্ছে দায়িত্ব পালন। কাজেই সেই দায়িত্বটাই পালন করতে চাই। আমি সব সময় মনে রাখি যে আমার বাবা দেশটাকে স্বাধীন করে দিয়ে গেছে, তাই জনগণের সেবা করাটা আমার প্রথম কর্তব্য।’

তিনি আরো বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়ন ও বাংলাদেশ বেকার মুক্ত এবং শিক্ষাকে বহুমুখি করতে বর্তমান সরকার কাছ করছে। উচ্চ শিক্ষা বাজার মুখি করনে কাজ করছি।

শিক্ষার উন্নয়নে তাঁর সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এদেশের শিক্ষায় গবেষণা  খুব একটা গুরুত্ব পায় নি। কিন্তু ৯৬ এ ক্ষমতায় এসে আমরাই প্রথম গবেষণায় বরাদ্দ দিই। সে সময় ১২ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। আজকে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা গুরুত্ব পাচ্ছে। আজকে সমুদ্র গবেষণা হচ্ছে, শিক্ষা নিয়ে গবেষণা হচ্ছে।

রোহিঙ্গা সংকট প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার নির্যাতনের শিকার হয়ে পালিয়ে আসা ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে আমরা আশ্রয় দিয়েছি। এই নির্যাতিত মানুষের আশ্রয় দেওয়ার পরে বিশ্ববাসীর কাছে অনেক প্রশংসা পেয়েছি। এতো রোহিঙ্গা অন্য কোন দেশ আশ্রয় দিতে রাজি না থাকলেও আমরা আশ্রায় দিয়ে বিশ্ববাসীর কাছে রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করছি।

বাংলাদেশের সমৃদ্ধি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে বাংলাদেশের  সমৃদ্ধি দেখে বিশ্ববাসী অবাক। তাঁরা জিজ্ঞেস করে কোন ম্যাজিক অনুস্মরণ করে আমরা উন্নয়ন করেছি।

শেখ হাসিনা বলেন, ভোগের জন্য ক্ষমতায় আসি নি। ক্ষমতায় এসেছি মানুষের সেবা দিতে। সেই লক্ষ্যেই কাজ করছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার সুযোগ হওয়ায় গর্বিত হওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আমার বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সের ছাত্রী ছিলাম আমি। কিন্তু ৭৫ এ জার্মানিতে চলে যাওয়ার কারণে মাস্টার্স শেষ করা হয় নি। এই দুঃখটা এখনও রয়ে গেছে।

এর আগে আজ সকাল সাড়ে ১০টায় রোকেয়া হলে আসবেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে স্মরণীয় করে রাখতে রোকেয়া হলের ছাত্রীদের জন্য নবনির্মিত ৭ মার্চ ভবন উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আখতারুজ্জামান, প্রোভিসি অধ্যাপক এম এ সামাদ প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রীর ভষণের ভিডিও:



এবিএন/মাইকেল/জসিম/এমসি

এই বিভাগের আরো সংবাদ