মেনন ও তার স্ত্রীর পদত্যাগ চাইলেন আলাল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৪৪

একাদশ সংসদ নির্বাচনে মানুষ ভোট দিতে পারেনি, বরিশালে এক অনুষ্ঠানে দেওয়া এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ও তার স্ত্রীকে পদত্যাগ করতে বললেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

রবিবার (২০ অক্টোবর) রাশেদ খান মেননের দেয়া বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে একথা বলেন যুবদলের সাবেক এই সভাপতি।

তিনি বলেন, রাশেদ খান মেনন ৫ জানুয়ারি ২০১৪ সালের নির্বাচনের পরেও বর্তমান সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। এমনকি বর্তমান সরকারের তিনি একজন সংসদ সদস্য। তার স্ত্রীও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য। এতকিছু সুযোগ-সুবিধা পাওয়া সত্ত্বেও তিনি এই সত্য কথাগুলো বলেছেন। অতএব আমাদের সেই প্রিয় মেনন ভাইকে যদি পেতে চাই তাহলে তাকে তার সেই পদ থেকে অবশ্যই পদত্যাগ করতে হবে। একইসঙ্গে তার স্ত্রীকেও পদত্যাগ করতে হবে।

এছাড়া তিনি সরকারের কাছ থেকে যেসব সুযোগ-সুবিধা নিয়েছেন সেগুলোও ফেরত দিতে হবে।

আলাল বলেন, রাশেদ খান মেনন গতকাল দীর্ণতার সাথে যে কথাগুলো বলেছেন সেই কথাগুলো শুনলে ৬৫-৬৬ সালের রাশেদ খান মেননের কথা মনে পড়ে। এমনকি স্বাধীনতার পরের সেই রাশেদ খান মেননের কথা মনে পড়ে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের সঙ্গে বলতে হয় ক্যাসিনো-কাণ্ডে যারা গ্রেফতার হয়েছেন তারা বলেছেন রাশেদ খান মেনন প্রতিমাসে ৫ লাখ করে টাকা নিতেন এবং টাকা দেয়ায় দেরি হলে তিনি তাকে ধমক দিতেন। এই কথাগুলো উনাকে মিথ্যা প্রমাণিত করতে হবে এবং দেশের গণতন্ত্র ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় তার বক্তব্য ঠিক থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত,এর আগে শনিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে বরিশাল নগরের অশ্বিনী কুমার হলে ওয়াকার্স পার্টির বরিশাল জেলা শাখার সম্মেলনে মেনন অভিযোগ করেন, বিগত ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি। আমি সাক্ষী, এই নির্বাচনে আমিও নির্বাচিত হয়েছি। আমি সাক্ষী দিয়ে বলছি, আমি জনগণ, সেই জনগণ, তারা ভোট দিতে পারে নাই। তবে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বক্তব্যের যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেটিও কি ভুল ছিল।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ