বাকশাল করার কোনো সম্ভাবনা নেই: নাসিম

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৩০ মার্চ ২০১৯, ২১:২২

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলীয় জোটের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, 'বিএনপির কাছে এখন একটা ইস্যু এসে গেছে, বাকশাল। আর কোনো ইস্যু নেই, এটা নিয়েই তারা ব্যস্ত আছে। কিন্তু এখন বাকশাল প্রতিষ্ঠার কোনো প্রয়োজন নেই। ৯১ সালে আমরা (আওয়ামী লীগ) বিরোধী দলে থেকেই সংসদীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছি। এ জন্য যা যা দরকার করেছি। এখন আমরা কোন কারণে বাকশাল করব?'

তিনি বলেন, 'তখন কেন বাকশাল করা হয়েছিল- বাকশালের রাজনৈতিক দর্শনের কথা নেত্রী (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) বলেছেন। এখন বাকশাল করার কোনো সম্ভাবনা নেই। আমরা সংসদীয় গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি। আপনারা (বিএনপি) গণতন্ত্রে বিশ্বাস করলে আমাদের সঙ্গে আসেন।'

শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে মোহাম্মদ নাসিম এসব কথা বলেন।

‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা: ধর্মনিরপেক্ষতার সংকট ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক এই গোলটেবিল বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি।

আলোচনায় অংশ নেন- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি, বাংলাদেশ জাসদের সভাপতি শরীফ নূরুল আম্বিয়া, প্রবীণ সাংবাদিক কলামিস্ট কামাল লোহানী, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহিদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসনে চৌধুরী মায়া, লেখক মফিদুল হক, অধ্যাপক এম এম আকাশ, ড. এনামুল হক, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ নেতা কাজল দেবনাথ, নির্মল ডি রোজারিও, ইসলামী ঐক্যজোট নেতা মাওলানা জিয়াউল হাসানসহ ১৪ দলীয় জোট নেতারা।

মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, আমাদের চাইতে অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি বাংলাদেশে কে করে? কোন দল আছে? এমন অনেককে দেখেছি যারা মুখে অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির পক্ষে অনেক বড় বড় কথা বলে, আবার জামায়াতের সঙ্গেও সম্পর্ক রাখে। এত অস্থির হওয়ার কিছু নেই। রাজনৈতিক কৌশল ছাড়া রাজনীতি হয় না। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজনীতি করি, বামপন্থীরা (সরি) সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য আলোচনা করে দিন কাটিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, এদেশে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে বিএনপি-জামায়াত। ওদেরকে যে অবস্থায় নিয়ে গেছি, তাতে ওরা নিস্তেজ হয়েছে কিন্তু নির্মূল হয়নি। সুযোগ পেলে আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে। সাম্প্রদায়িক রাজনীতিকে নির্মূল করতে হলে ওদের নির্মূল করতে হবে।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, উদার গণতন্ত্র চাইবেন আবার অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ চাইবেন-এটা হতে পারে না। এক সঙ্গে দুইটা হয় না। সুশাসন চাইবেন আবার উদার গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র চাইবেন, তা হয় না। দু’টো জিনিস আপনি একসঙ্গে চাইতে পারেন না। কিছু বিষয়ে আপনাকে কঠোর হতে হবে। যা অর্জন করেছি, তা ধরে রাখতে হবে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ আমরাই প্রতিষ্ঠা করব।

বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, হ্যাঁ-না ভোট যারা করেছে, মার্শাল যারা দিয়েছে, তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা শোভা পায় না।

তিনি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতাদের উদ্দেশে বলেন, আপনারাই নিজেদেরকে নিজ ধর্মীয় পরিচয়ে পরিচিত করেছেন। বিশেষ পরিস্থিতির কারণে করে থাকলে এটা এখনও রেখেছেন কেন? এটা বন্ধ করে দেন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food