মোল্লাতন্ত্র বাংলাদেশের সামনে বড় বিপদ: মেনন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:০৭

মোল্লাতন্ত্রের জন্যই আহমদিয়া সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে মন্তব্য করেছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।
আজ শনিবার দুপুরে পঞ্চগড়ের আহমদনগর এলাকায় সম্প্রতি আহমদিয়া মুসলিম জামাতের ওপর স্থানীয়দের হামলা ও অগ্নিসংযোগে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করে এই মন্তব্য করেন তিনি।

মেনন বলেন, জামায়াত ইসলামের নেতারা মানবতাবিরোধী অপরাধের জন্য ফাঁসিতে ঝুলেছে। তাদের দল এখন নিস্ক্রিয়। তবে মোল্লাতন্ত্র এখনো রয়ে গেছে। মোল্লাতন্ত্র বাংলাদেশের সামনে এখনো বড় বিপদ হিসেবে অবস্থান করছে। তারা সম্প্রদায়ে সম্প্রদায়ে বিভেদ সৃষ্টি করছে। তারা নানাভাবে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। আমি শুনেছি এখানকার ঘটনার সাথে হেফাজত ইসলামেরও যোগ রয়েছে।

তিনি বলেন, আহমদিয়াদের যদি অমুসলিম ঘোষণা করতে হয় তাহলে আগাখানিদের আমরা কি বলবো? শিয়াদের কি বলবো? বাহাই নৃগোষ্ঠীদের কি বলবো? এটি সম্পূর্ণ পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত জামায়াত ইসলামের কূটচেষ্টার সাথে যুক্ত হয়ে নতুন রূপে আবির্ভূত হতে যাচ্ছে। পাকিস্তান আহমদিয়াদের অমুসলিম ঘোষণাসহ এমন কোনো কাজ নাই যে করেনি। পঞ্চগড়ের মানুষ শান্তিপ্রিয়, এটা বাইরে থেকে পরিকল্পিত আক্রমণ।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতির দেশ কেবল নয় বাংলাদেশের সংবিধান সকল মানুষে সকল ধর্মের মানুষের চিন্তার স্বাধীনতা দিয়েছে। এ ঘটনায় আমার দলের পক্ষ থেকে এবং বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে নিন্দা জানাচ্ছি। এ ধরণের  সাম্প্রদায়িক সংঘাত সৃষ্টির যে অপচেষ্টা যেন আর না ঘটতে পারে সেজন্য আমি সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এমনকি এ ঘটনায় জড়িতরা যেই হোক তাদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

এ সময় পঞ্চগড়-১ সাবেক সাংসদ নাজমুল হক প্রধান, ঠাকুরগাঁও জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ ইয়াসিন আলী, আহমদিয়া মুসলিম জামাতের নায়েব ন্যাশনাল আমির (গণসংযোগ ও বহিঃসম্পর্ক বিভাগ) আহমদ তবশির চৌধুরী, আহমদনগর আহমদিয়া মুসলিম জামাতের সভাপতি তাহের যুগলসহ আহমদিয়া সম্প্রদায় ও ওয়ার্কার্স পার্টির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ