ডাকসু নির্বাচন: তফসিল ঘোষণা আজ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:৪৪

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হচ্ছে আজ। আগামী ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ নির্বাচনের তফসিল আজ সোমবার ঘোষণা করা হবে বলে রবিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সকাল সাড়ে দশটায় নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে তফসিল ঘোষণা করবেন ডাকসু নির্বাচনের চীফ রিটার্নিং অফিসার অধ্যাপক ড. এসএম মাহফুজুর।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়ে বলা হয়েছে, তফসিল ঘোষণার সময় রিটার্নিং অফিসারগণ উপস্থিত থাকবেন। স্ব স্ব হল কর্তৃপক্ষ হল সংসদ নির্বাচনের তফসিলও ঘোষণা করবেন। দীর্ঘ তিন দশক পর আদালতের নির্দেশে ডাকসু নির্বাচনের উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ ডাকসু নির্বাচন হয়েছিল ১৯৯০ সালে। ডাকসু নির্বাচন চেয়ে আদালতে রিট আবেদন হয়েছিল, তাতে ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন আয়োজনের নির্দেশনা আসে গত বছর হাইকোর্ট থেকে।

কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের আবেদনে ওই আদেশ স্থগিত করেছিল আপীল বিভাগের চেম্বার আদালত। আপীল বিভাগ গত ৬ জানুয়ারি সেই স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে নিলে নির্বাচন আয়োজনের বাধা কাটে। এর পর নির্বাচনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং এ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের অধ্যাপক ড. এসএম মাহফুজুর রহমানকে প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ আরও পাঁচজনকে রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়া হয়। এদিকে এই নির্বাচনের ভোটগ্রহণ কোথায় হবে, তা নিয়ে ছাত্র সংগঠনগুলোর মধ্যে এখনও কিছুটা মতভেদ আছে। আগের মতো হলগুলোতে ভোটকেন্দ্র স্থাপনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ছাত্রলীগ। ছাত্রদল ও বাম সংগঠনগুলো একাডেমিক ভবনে ভোটকেন্দ্র স্থাপনের দাবি তুলেছে। তবে ছাত্র দলের দাবি নির্বাচনের তফসিল পেছাতে অন্তত ৩ মাস, তার পর নির্বাচন।

১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচনের দিন ঠিক করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ওইদিন সকাল ৮টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলবে। নির্বাচনের গঠনতন্ত্রের ৮(ই) ধারা অনুযায়ী ডাকসুর সভাপতি হিসেবে উপাচার্য মোঃ আখতারুজ্জামান গত ২৩ জানুয়ারি নির্বাচনের এই তারিখ ও সময় নির্ধারণ করেন।

এখন পর্যন্ত সব ছাত্র সংগঠনই ডাকসু নির্বাচনের বিষয়ে ইতিবাচক অবস্থানে আছে। কয়েকটি নির্দিষ্ট বিষয়ে তাদের দাবিদাওয়া থাকলেও নির্বাচন নিয়ে নেতিবাচক কোন আশঙ্কা নেই ছাত্র সংগঠনগুলোর মাঝে। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ সংসদের সঙ্গে ছাত্র সংগঠনগুলোর করা কয়েক দফা মতবিনিময় সভায় তাদের দাবি তুলে ধরেছে তারা।

ছাত্রলীগ বলছে, ইতিবাচক রাজনীতির ধারায় এলে ছাত্রদলকে ক্যাম্পাসে কোন বাধা দেয়া হবে না। ডাকসু নির্বাচনে ভোটার কিংবা প্রার্থী কারা হতে পারবেন সে বিষয়ে ছাত্র সংগঠনগুলো একমত হলেও দ্বিমত দেখা গেছে ভোটকেন্দ্র নিয়ে। ছাত্রলীগ বলছে বিদ্যমান গঠনতন্ত্র অনুযায়ী হলগুলোতেই ভোটকেন্দ্র স্থাপন করতে হবে। অন্যদিকে ছাত্রদল এবং অন্যান্য বাম সংগঠনের দাবি একাডেমিক ভবনগুলোতে ভোটের আয়োজন করার। এছাড়া যারা দ্বিতীয়বার মাস্টার্স করছে এবং ডাকসু ও হল সংসদের ফি দিচ্ছেন তাদের ভোটার করার দাবি জানিয়েছে কয়েকটি বাম সংগঠন। তারা সান্ধ্যকালীন কোর্সের শিক্ষার্থীদেরও ভোটার করার দাবি জানিয়েছেন।

এদিকে তফসিল ঘোষণার উদ্যোগকে অত্যন্ত ইতিবাচক দেখছে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগ। সংগঠনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাশ জনকণ্ঠকে বলেছেন, আমরা সব সময়ই দাবি জানিয়েছি নির্দিষ্ট সময়ে তফসিল ঘোষণা করা হোক। তফসিল ঘোষণা হচ্ছে; এটাকে আমরা অত্যন্ত ইতিবাচক পদক্ষেপ হিসেবে দেখছি। আমরা মনে করি ছাত্রলীগসহ পুরো বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার যে নির্বাচনের পথে এগিয়ে যাচ্ছে সেখানে তফসিল হচ্ছে একটি বড় পদক্ষেপ। আমরা নির্বাচনের পথে আরও একধাপ এগিয়ে গেলাম।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food