একটি দল ইফতার পার্টিতে আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে: কাদের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৮ মে ২০১৮, ০০:৫৮

নোয়াখালী, ২৮ মে, এবিনিউজ : মসজিদ বা পবিত্রস্থানে রাজনীতি না করার আহবান জানিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘একটি বিশেষ দল ইফতার পার্টিতে অহেতু আক্রমণাত্মক ও বিদ্বেষ প্রসূত বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে।’

রবিবার নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যক্ষ খায়রুল আনম সেলিম, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শাহাবুদ্দিন সহ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

পবিত্র রমজান মাসে সবাইকে সংযমি হওয়ার আহবান জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘রমজান হচ্ছে সংযমের মাস। তাই সবাইকে সংযমি হতে হবে।’

পরে মন্ত্রী পার্শ্ববর্তী উপজেলা কবিরহাট উপজেলায় পৌর ভবনে আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে যোগ দেন।

মানুষের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করার অনুরোধ করে দলের নেতা-কর্মীদেরকে কাদের বলেন, ‘কারও মনে কষ্ট দিয়ে নেতা হওয়ার চেষ্টা করবেন না। কারণ ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়। আজ আছি কাল হয়ত নাও থাকতে পারি।’

‘কারও ভালো না লাগলে চলে যান, তবে দলে থেকে কোনো অপকর্ম করলে তা সহ্য করা হবে না।’

রাজনীতিক হিসেবে উদাহরণ তৈরি করারও দাবি করেন কাদের। বলেন, ‘এমপি হয়েছি, মন্ত্রী হয়েছি। তারপরেও আমি কোনো সংবর্ধনা নিইনি, গেইট করতে দেয়নি। আমার এগুলো দরকার নেই। আমি মানুষের মাঝে আছি, থাকব।’

নেতাকর্মীদের আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘বিলবোর্ডে ছবি দিয়ে নেতা হওয়া যায় না, কাজ লাগবে, কীর্তি লাগবে।’

তার ছবি দিয়ে যেসব বিলবোর্ড টানিয়েছেন, সেগুলো অতিসত্তর নামিয়ে ফেলারও নির্দেশ দেন কাদের। বলেন, ‘না হয় আমি নিজে এসব বিলবোর্ড নামিয়ে ফেলব।’

‘আমি উড়ে এসে জুড়ে বসে নেতা হইনি। আমি তৃণমূল থেকে বড় নেতা হয়েছি, আমার নেত্রী আমার ত্যাগের মূল্যায়ন করেছেন। আমার নেত্রীর কাছে আমি কৃতজ্ঞ। এখানে আমার জন্ম, আপনারা আমাকে ভালোবাসেন এবং ভোট দেন বলেই আমি এমপি হই, মন্ত্রী হই।’

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খাঁনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাহাব উদ্দিন, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজম পাশা চৌধুরী রুমেল, চরকাঁকড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান আরিফ, স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদ সদস্য ফখরুল ইসলাম রাহাত প্রমূখ।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ