রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে নির্বাচন হয়েছে: ফখরুল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৭ | আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:০৭

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন, ‘পুরো রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে সুপরিকল্পিত একটি নির্বাচন হয়েছে।’আজ সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনপরবর্তী আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘নির্দলীয় সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচনের দাবি জানাই। আমরা এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করছি এবং অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনরায় নির্বাচন দিতে হবে।’

গতকাল রবিবার (৩০ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পরপরই নানা অভিযোগ এনে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে বিএনপিভুক্ত জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘বিচার বিভাগ থেকে শুরু করে প্রশাসন, সমস্ত ল অ্যান্ড অর্ডার যারা দেখেন, গোয়েন্দাদের যোগসাজশে নজীরবিহীন এই নির্বাচন করা হয়েছে। অতীতে কখনও এমন নির্বাচন দেখিনি। নির্বাচনের আগে থেকে ত্রাসের সৃষ্টি করা হয়েছে। জাতির ইতিহাসে সবেচেয়ে কলঙ্কময় নির্বাচন।’

গত নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘২০১৪ সালেন নিবাচন বর্জনের যে সিদ্ধান্ত বেগম খালেদা জিয়া দিয়েছিলেন, তা সঠিক ছিল, এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে তা প্রমাণিত হলো।’

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনে যে বিদেশি পর্যবেক্ষক ছিলেন তাদের তিনি চিনেন না। ‘বিদেশি কোনও অবজারভার ছিল কিনা, আমাদের জানা নেই। এগুলো আইওয়াশ। ভারতের কেউ ছিল না কিনা, জানি না।’

এসময় পাশ থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘তারা স্পন্সর অবজারভার।’ নতুন নির্বাচনের বিষয়ে নিবাচন কমিশন ‘না’ করে দিয়েছে— এ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা নতুন নির্বাচন চাই। এবং তা আদায় করতে কর্মসূচি দেওয়া হবে অবশ্যই।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব দাবি করেন, গত এক মাসে তাদের ২১ হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসব নেতাকর্মীর মুক্তিসহ তাদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।

সোমবার বিকাল সোয়া ৪টার দিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বৈঠক করেন। বৈঠকে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের ফল ও পরবর্তী করণীয় নিয়ে আলোচনা হয়।

নতুন কর্মসূচির সময় হলে জানা যাবে বলে জানান ফখরুল। পরে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী জানান, ‘নির্বাচনের ফল বিশ্লেষণ শেষ হওয়ার পর কর্মসূচি দেওয়া হবে। এটা দ্রুত হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, মির্জা আব্বাস, ড. আবদুল মঈন খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ