‘আমরা চাই, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটি নির্বাচন হোক’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৫৯

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমরা চাই, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটি নির্বাচন হোক। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ এ নির্বাচনে কারা জয়লাভ করবে তা দেশের জনগণই নির্ধারণ করবেন।’

তিনি আজ সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিএনপির নানা অভিযোগের জবাবে আয়োজিত এক তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সদস্য এস এম কামাল হোসেন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ের নিশ্চয়তা না পেলে নির্বাচনের ফলাফল পর্যন্ত নানা অবান্তর অভিযোগ করে যাবে।’

তিনি বলেন, বিএনপিকে সহিংসতার পথ থেকে সরে আসতে হবে। তারা (বিএনপি) ইতোমধ্যে টের পেয়েছে যে, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের মাধ্যমে তাদের নির্বাচিত হওয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ তাদের নেতিবাচক কর্মকান্ডের জন্য জনগণ বিরক্ত।

কাদের বলেন, নয়াপল্টনে দলীয় মনোনয়নপত্র বিতরণকালে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে ও পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়ে এবং গাড়ির ওপর নৃত্য করে বিএনপি প্রমাণ করেছে যে, তারা সন্ত্রাসী দলের বৈশিষ্ট্য থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি।

তিনি বলেন, যারা পুলিশের ওপর হামলা করেছে, গাড়িতে আগুন দিয়েছে ও পুলিশের গাড়ির ওপর নৃত্য করেছে তাদের কি রাজনৈতি কারণে গ্রেফতার করা হয়েছে? অপরাধ করলে সে কি সাজা পাবে না?

সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, এ ধরনের নাশকতা যারা করবে তারা নির্বাচনের কারণে ক্ষমা পাবে তা যেন বিএনপির নেতারা মনে না করে। তারা যেন এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না করে।

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করি, নির্বাচনের আগ পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকবে। সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, নির্বাচনে কারা জিতবে দেশের জনগণ সেটা জানে। তবে দেশের ক্ষমতায় আবার বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা ফিরে আসুক, সেটাই জনগণের প্রত্যাশা।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা সবুজ সংকেত দিলে বিএনপির নেতারা দলে দলে আওয়ামী লীগে যোগ দেবে। তা ঠেকানোর ক্ষমতা বিএনপির নেতাদের নেই।

এবিএন/মমিন/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ