‘গ্রেনেড হামলা মামলার রায় নিয়ে বিএনপির গাত্রদাহ শুরু হয়েছে’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ আগস্ট ২০১৮, ১২:৩৪ | আপডেট : ২৪ আগস্ট ২০১৮, ১৩:৩৭

ঢাকা, ২৪ আগস্ট, এবিনিউজ : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সেপ্টেম্বর মাসেই ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ২০০৪ সালের ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা সঙ্গে বিএনপি নেতারা সরাসরি জড়িত। এজন্যই বিএনপি নেতাদের গাত্রদাহ শুরু হয়েছে। কারণ, এই রায় বিএনপিকে নতুন করে সঙ্কটে ফেলবে।

তিনি আজ ২৪ আগস্ট (শুক্রবার) রাজধানীর বনানী কবরস্থানে নারী নেত্রী আইভী রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা জানান।

কাদের বলেন, এই হামলায় কয়েকশ’ নেতাকর্মী এখনও পঙ্গু। কেউ অর্ধ পঙ্গু, কেউ পুরো পঙ্গু। বিএনপি এ হামলার আলামত পুড়িয়ে ফেলেছিল। জজ মিয়া নাটক সাজিয়ে ছিল। তারা এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের বিচার করেনি। প্রহসনমূলক একটা তদন্ত কমিটি করেছিল।

তিনি বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের বিচার হলে বিএনপির গাত্রদাহ কেন শুরু হচ্ছে? এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তারা জড়িত, তাদের পরিকল্পনায় কিলাররা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সেদিনের হামলায় ২২ প্রাণের প্রদীপ নিভে গেছে আমাদের দলের, সঙ্গে অজানা ২ জন। এই হত্যাকাণ্ডের বিচার হলে বিএনপির গাত্রদাহ কেন শুরু হচ্ছে? এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তারা জড়িত, তাদের পরিকল্পনায়, তাদের নির্দেশনায়, তাদের ভাড়া করা রাজনৈতিক কিলাররা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল। বিএনপি সরকারের প্রত্যক্ষ মদদে, হাওয়া ভবনের সরাসরি পরিকল্পনা এবং নির্দেশনা।

সেতুমন্ত্রী বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের বিচার হচ্ছে, এতে দেশের মানুষ খুশি। শুধু বিএনপি শুধু অখুশি। এই কথা শুনেই বিএনপি এখন চিন্তিত। কারণ এটা আবার তাদেরকে রাজনীতিকে নতুন করে সঙ্কটে ফেলবে। তারা এমনিতেই সঙ্কটে আছে।

তিনি আরও বলেন, এখানে অন্য কোনো পার্টি নেই, তখন খালেদা জিয়া সরকার। তারাই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে, কারণ তারা এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত। হত্যাকারী যেই হোক, যত প্রভাবশালী হোক ক্ষমা পাবে না। বিচারের রায় আমরা প্রভাবিত করতে চাই না। নিরপেক্ষ বিচার হচ্ছে, স্বাধীন বিচার হবে। বিচারে যারাই দোষী সাবস্ত হবে, শাস্তি তাদেরকে পেতেই হবে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর প্রমুখ।

এবিএন/মাইকেল/জসিম/এমসি

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food