জনগণের আস্থা অর্জনে ব্যর্থ বিএনপির হাইকমান্ড, উত্তরণের বাধা তারেক!

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২২ অক্টোবর ২০২০, ১৭:৩৯

ছবি: সংগৃহীত
ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনের উপ-নির্বাচনসহ একাধিক স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনে শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা। প্রয়োজন মাফিক ভোট না পাওয়ায় অনেক জায়গায় বিএনপির প্রার্থীরা জামানত পর্যন্ত হারিয়েছেন। জানা গেছে, ভোটের রাজনীতিতে দলের এমন শোচনীয় অবস্থা ভাবিয়ে তুলেছে বিএনপির হাইকমান্ডকে। জনগণ বিএনপিকে পছন্দ করছে না, বিএনপির ডাকে সাড়াও দিচ্ছে না, জনগণ বিএনপিকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না-এমন একাধিক প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে হয়রান হয়ে পড়েছেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা।

বিএনপি ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র বলছে, জাতীয় ও স্থানীয় নির্বাচনে বিএনপির সাম্প্রতিক শোচনীয় পরাজয়ে হতাশ বিএনপির হাইকমান্ড। কোনোভাবেই মানুষের আস্থা অর্জন করতে পারছে না দলটি। দলের এমন দুর্দশায় আগামীতে কোনো ধরনের নির্বাচনী প্রলোভনে না পড়ে দল গুছিয়ে জনগণের আস্থা অর্জন করতে গোপনে মির্জা ফখরুলদের নির্দেশও দিয়েছেন বেগম জিয়া-এমন গুঞ্জন চাউর হচ্ছে দলটির রাজনীতিতে। তাই আগামীতে বিএনপি কোনো ধরনের নির্বাচনে অংশ নিবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় শুরু হলো নতুন করে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বিএনপি এমন শোচনীয় অবস্থায় পড়েনি বলেও মানছেন খোদ দলটির প্রতিষ্ঠাকালীন একাধিক সদস্য। তাই নির্বাচনের নামে দলীয় নেতাদের পকেট খালি না করে দল গঠনে হাইকমান্ডকে মনোযোগী হতে পরামর্শ দিতে চান তারা।

নির্বাচনের রাজনীতিতে বিএনপি এখন ক্ষয়িষ্ণু শক্তি, তাই নির্বাচন করে লজ্জাজনক পরাজয় বরণ করা বাদ দিয়ে আপাতত দলের সংকট উত্তরণে শীর্ষ নেতাদের গভীর গবেষণা দরকার, এমনটাই মনে করছেন দলটির একাধিক সিনিয়র নেতা। কিন্তু তাদের এমন মতামতকে দাম দেবেন না তারেক রহমান। কারণ নির্বাচনে অংশগ্রহণের নামে মনোনয়ন বিক্রি ও অন্যান্য সহযোগিতার নামে পাওয়া অর্থের লোভ পেয়ে বসেছে তারেককে। তাই দল গোল্লায় গেলেও নিজের অর্থের যোগান বন্ধ করতে নারাজ তারেক। তাই শত অনুরোধ করলেও কাজ হবে না। কিন্তু দলের ক্রমাগত পরাজয়ে তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত চিন্তিত। এমন অবস্থা চলতে থাকলে গণপদত্যাগের শঙ্কা রয়েছে। যদিও এসব বিষয় নিয়ে গভীর চিন্তা করেও সমাধানের কোনো পথ খুঁজে পাচ্ছেন না বিএনপি নেতারা-এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে।

 

এবিএন/ইমরান/জসিম/এসই 

এই বিভাগের আরো সংবাদ