‘রেড জোন’ ওয়ারীতে ২১ দিনের লকডাউন শুরু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ জুলাই ২০২০, ০৯:১১

করোনার বিস্তারে ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত পুরান ঢাকার ওয়ারী লকডাউন করা হয়েছে। আজ শনিবার (৪ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে এই লকডাউন কার্যকর করা হয়েছে। চলবে ২৫ জুলাই পর্যন্ত। ফলে ওই এলাকার মানুষের অবাধ যাতয়াত ও বিচরণ বন্ধ থাকবে। এ জন্য সড়ক, গলি ও গলির মুখ কার্যকরভাবে বন্ধ রাখতে হবে এবং সার্বক্ষণিক পুলিশ টহল নিশ্চিত করতে হবে।

ওয়ারীর আউটার রোড-টিপু সুলতান রোড, যোগীনগর রোড ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক (জয়কালী মন্দির থেকে বলধা গার্ডেন) এবং ইনার রোডগুলোর মধ্যে-লারমিনি স্ট্রিট, হেয়ার স্ট্রিট, ওয়্যার স্ট্রিট, র‌্যাংকিং স্ট্রিট ও নবাব স্ট্রিট লকডাউনের আওতায় থাকবে।

সকাল সাড়ে ৬টায় ওয়ারীর চারদিকে ঘুরে দেখা গেছে, এলাকার প্রত্যেকটি অলিগলি প্রবেশমুখে বাঁশ দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জরুরি প্রবেশের জন্য খোলা রাখা হয়েছে এলাকাটির র‌্যাংকিং স্ট্রিটের টিপু সুলতান রোড এবং হট কেক গলি। লকডাউনের প্রথম ঘণ্টায় এলাকাবাসীকে বাঁশের বেড়া টপকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। তবে অফিস শুরুর সময় না হওয়ায় তেমন কাউকেই এলাকার বাইরে বের হওয়ার চেষ্টা করতে দেখা যায়নি। পুলিশের ধারণা, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হয়তো এলাকাবাসী বের হওয়ার চেষ্টা করতে পারে।

এলাকাবাসীকে সহযোগিতা করতে কাউন্সিলরের নির্দেশে ২০০ স্বেচ্ছাসেবক কাজ করে যাচ্ছেন। প্রতি শিফটে ৫০ জন কাজ করছেন। জোনের ভেতরে বেশ কয়েকটি সুপার শপ থাকায় সিটি করপোরেশনের নির্দেশে সেগুলো খোলা রয়েছে।

হট কেক গলিতে কর্তব্যরত ওয়ারী থানার সাব-ইন্সপেক্টর জহির হোসেন বলেন, ‘সকাল ৬টা থেকে আমরা কঠোর অবস্থানে আছি। যদিও একেবারে প্রথম ঘণ্টা তাই এখন পর্যন্ত কাউকেই বাইরে বের হওয়ার চেষ্টা করতে দেখা যায়নি। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সেটা হতে পারে। কিন্তু আমাদের দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী এলাকায় অবস্থানরত ডাক্তার, নার্স, সংবাদকর্মী এবং যাদের একান্তই জরুরি প্রয়োজন তারা বাইরে যেতে পারবেন বিশেষ বিবেচনায়।’

করোনার বিস্তার ঠেকাতে ২৬ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল সারাদেশে লকডাউন চলে। এরপর বিধিনিষেধ শিথিল করা হলেও সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এখন এলাকাভিত্তিক লেকডাউন হচ্ছে।

এর আগে ঢাকার রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারে পরীক্ষামূলকভাবে রেড জোন ঘোষণা করা ২১ দিন লকডাউন চলে।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ