শোলাকিয়ার ১৯৩ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম ঈদ জামাত হচ্ছে না

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ মে ২০২০, ২৩:৫০

করোনার কারণে ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহে ১৯৩ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম নামাজ আদায় হচ্ছে না। মহামারির কারণে শোলাকিয়া ছাড়াও দেশের অন্যান্য ঈদগাহ ময়দানেও কোনও আয়োজন নেই। তবে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেশের মসজিদগুলোতে নামাজ আদায় করা যাবে। কিন্তু, ঈদের অবিচ্ছেদ্য রীতি কোলাকুলি ছাড়াই নামাজ শেষে ঘরে ফিরতে হবে মুসলিমদের।

ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়ার অপরিহার্য রীতি-কোলাকুলি এবার নিষিদ্ধ। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে খোলামাঠে ঈদের জামাতও বন্ধ।

১৯৮১-৮২ সাল থেকে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে প্রতিবছর ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। তবে জাতীয় ঈদগাহ হিসেবে স্বীকৃতি পায় ১৯৮৭-৮৮ সালে। এতদিনে এবারই প্রথম ঈদের দিন নামাজবিহীন কাটবে এই ঈদগাহের।
 
এমনকি, ঈদের নামাজ হচ্ছেনা ১৯৩ বছরের প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী ঈদগাহ শোলাকিয়াতেও।

আকার ও আয়তনের দিক দিয়ে এশিয়ার সবেচেয়ে বড় ঈদগাহ দিনাজপুরের গোর-এ-শহীদ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ। এ শহরের মানুষদেরও এবার নামাজ পড়তে হবে মসজিদেই।
 
অন্যদিকে, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে আয়োজন করা হয়েছে ৫টি ঈদ জামায়াতের। প্রত্যেক জামাতেই কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে বলে জানিয়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নুরুল ইসলাম। অন্যান্য মসজিদেও সকাল ৭টা থেকে পোনে ১১টার মধ্যে এক বা একাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ