করোনা : সার্কভুক্ত দেশগুলোর ৫ সুপারিশ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০০:৫০ | আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০০:৫২

করোনা ভাইরাস মোকাবিলা ও পরবর্তীকালে অর্থনৈতিক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সার্কভুক্ত সদস্য দেশগুলো আমদানি-রপ্তানি কাজে ব্যবহৃত ট্রাক ফিউমিগেশন করা এবং ব্যাংক গ্যারান্টি অব্যাহতিসহ পাঁচটি সুপারিশ করা হয়েছে।

বুধবার (০৮ এপ্রিল) কোভিড-১৯ মোকাবিলায় আশু করণীয় নির্ধারণের জন্য  ভারতের অতিরিক্ত বাণিজ্য সচিব এসএস বাল্লাই এর সভাপতিত্বে সার্কভুক্ত দেশগুলোর বাণিজ্য কর্মকর্তাদের এক ভিডিও কনফারেন্সে এ সুপারিশ গ্রহণ করা হয়।

ভিডিও কনফারেন্সে আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা ও ভুটান অংশ নেয়। বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম শরিফা খান। ভিডিও কনফারেন্সে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বাংলাদেশ ব্যাংক, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো এবং প্ল্যান্ট কোয়ারেন্টিন দপ্তরের প্রতিনিধি অংশ নেন।

সার্কভুক্ত দেশগুলোর বাণিজ্য কর্মকর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত ভিডিও কনফারেন্সে করোনা মোকাবিলায় ও করোনা পরবর্তী সময়ে পাঁচটি ক্ষেত্রে ব্যবস্থা প্রণয়নের জন্য সুপারিশ গৃহীত হয়েছে। সুপারিশগুলো হলো: পারস্পরিক সমন্বয়ের জন্য প্রত্যেক দেশ থেকে একজন ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তা মনোনয়ন, স্থলবন্দরে কোয়ারেন্টিন ব্যবস্থার আনুষ্ঠানিকতা দ্রুত করার উদ্যোগ নেওয়া, আমদানি-রপ্তানি কাজে ব্যবহৃত ট্রাক ফিউমিগেশন করা, প্রত্যেক দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সঙ্গে আলোচনা করে আমদানি-রপ্তানির ক্ষেত্রে ব্যাংক গ্যারান্টি হতে অব্যাহতির বিষয়ে বিবেচনা ও কোভিড-১৯ পরবর্তী সময়ে আন্তঃসার্ক বাণিজ্য বাড়ানোর জন্য বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণের উদ্যোগ গ্রহণ।

সভায় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বর্তমান সরকার করোনা মোকাবিলায় দ্রুত ও সময়পোযোগী সব ব্যবস্থা নিয়েছে। জনগণকে সেফ কোয়ারেন্টিনে রাখাসহ চিকিৎসা দেওয়া ও দরিদ্র জনগোষ্ঠীর খাদ্যসামগ্রী যোগান দিতে সরকার তৎপর রয়েছে। করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে ৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন।

সভার শুরুতে জানানো হয়, বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ায় দক্ষিণ এশিয়ার প্রায় সব দেশই লকডাউন পালন করছে। এ অবস্থায় জনস্বাস্থ্যের হুমকি মোকাবিলার জন্য সার্ক দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা গত ১৫ মার্চ ভিডিও কনফারেন্স করেন। এ কনফারেন্সে খাদ্য নিরাপত্তা ও প্রয়োজনীয় ওষুধপত্রের সরবরাহ নিশ্চতকরণের জন্য সার্ক দেশভুক্ত বাণিজ্য প্রতিনিধিদের প্রযোজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করার জন্য দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ