বিমানবন্দরের জন্য ভারতকে জমি দিচ্ছে না বাংলাদেশ; ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২২:০৯

আগরতলায় বিমানবন্দরকে সম্প্রসারণ করার জন্য ভারতকে জমি দেবার প্রস্তাবে সাড়া দেননি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বরং কক্সবাজার, চট্টগ্রাম এয়ারপোর্টের সেবা যাতে ত্রিপুরা রাজ্য পায় সেজন্য উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। 

 বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) আগরতলায় উজ্জয়ন্ত প্যালেসে দুইদিন ব্যাপী ভারত-বাংলাদেশ পর্যটন উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা জানান ভারতের ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে আমার যখন অক্টোবরে দিল্লীতে দেখা হয়েছিল, তখন উনার কাছে আমি ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলাম যেন ঢাকা থেকে আগরতলায় ফ্লাইট আসে। আমি বলেছিলাম, আগরতলার বিমানবন্দরটা তো একদম সীমান্তের সাথে লাগোয়া, তাই বিমানবন্দরটিকে বাড়ানোর জন্য বাংলাদেশ-ভারত মিলে একই বিমানবন্দর ব্যবহার করতে পারে। বাংলাদেশের কিছু জায়গা দিন, টার্মিনাল হয়ে যাবে।

বিপ্লব কুমার দেব জানান, বিমানবন্দরের জন্য জমি দিতে রাজি না হলেও ঢাকা-আগরতলা বিমান চলাচল শুরুর আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জানান, ফেনী নদীর ব্রিজ হয়ে গেলে ত্রিপুরার মানুষ অবশ্যই কক্সবাজারে পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত দেখতে যাবে এমন প্রত্যাশাও প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

সামনে বাংলাদেশ নতুন বিমান কিনলে, এর একটি আগরতলা রুটে দেওয়ার আশ্বাস বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দিয়েছেন এমনটি জানান বিপ্লব কুমার। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ত্রিপুরা রাজবাড়ি হিসেবে খ্যাত উজ্জয়ন্ত প্রাসাদে বর্নিল আলোক প্রদর্শনীর মাধ্যমে আয়োজনের উদ্বোধন হয়। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব দুই দেশের মধ্যে পর্যটনের সম্ভাবনা আরও এগিয়ে নেবার তাগিদ দেন। 

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি আয়োজকদের ধন্যবাদ দিয়ে, এরকম আয়োজন এবং দুই দেশের সম্পর্ক এগিয়ে নেবার ঘোষণা দেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের সংস্কৃতি কর্মী ও সাংবাদিকেরা অংশ নেন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ