২ কোটি ১০ লাখ মানুষের পুষ্টিকর খাবার কেনার সামর্থ্য নেই: ডব্লিউএফপি  

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:০১ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:৫৮

বাংলাদেশে নারীদের পুষ্টি পরিস্থিতি বেশ নাজুক। ১০ থেকে ৪৯ বছর বয়সী নারীদের প্রতি তিনজনের একজন পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার পান না।

বাংলাদেশ সরকার এবং বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) কর্তৃক তৈরি যৌথ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত বুধবার এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনে খাদ্যের সহজলভ্যতা এবং কেনার সামর্থ্য সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। 
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আর্থিক সামর্থ্য নেই বলে বিপুলসংখ্যক মানুষ প্রয়োজনীয় অনুপুষ্টিকণার ঘাটতির মধ্যে রয়েছে। এছাড়া কম বয়সী নারীরা পুষ্টি সমস্যায় ভুগছে। এর সঙ্গে তারা বাল্যবিবাহ, গর্ভধারণের মতো স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ছে।

আরও উদ্বেগজনক বিষয় হচ্ছে, বাংলাদেশে বয়ঃসন্ধিকালীন ছেলে-মেয়ে ও বৃদ্ধদের পুষ্টির চাহিদা মেটানোর বিষয়টি অধিকাংশ ক্ষেত্রে যথাযথ গুরুত্ব পাচ্ছে না।

খাদ্যঘাটতি পূরণ শীর্ষক এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের ২ কোটি ১০ লাখের বেশি মানুষের অর্থাৎ প্রতি আটজনের একজনের পুষ্টিকর খাবার কেনার সামর্থ্য নেই। অন্যদিকে সুষম খাবার কেনার সামর্থ্য নেই দেশের অর্ধেকের বেশি মানুষের।
বাংলাদেশের জনসংখ্যার ১১ দশমিক ৩ শতাংশ অতিদরিদ্র। সুষম পুষ্টিকর খাবার কোনো একটি পরিবারকে কিনে খেতে গেলে তাকে দিনে ১৭৪ টাকা খরচ করতে হবে। কিন্তু খাওয়ার পেছনে ওই অর্থ খরচের সামর্থ্য নেই। তারা দিনে ৮০ টাকার বেশি খরচ করতে পারে না। তারা প্রতিদিন খাদ্যশক্তি পায় ভাত, আলু, রুটি ও সবজি থেকে। দেশে বছরে ৮ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়।
তবে প্রতিবেদনের শুরুতে পুষ্টির সমস্যা কমিয়ে আনায় বাংলাদেশের সাফল্যের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ