দুদকের তালিকায় ১৫৯ জন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০৫

দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) দায়মুক্তি বলে কিছু নেই, সংস্থাটির চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ এ দাবি করেছেন।

বুধবার (২০ নভেম্বর) নিজ কার্যালয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলেই অনুসন্ধান করা হয়। প্রমাণ পাওয়া না গেলে অভিযোগ নথিভুক্ত করা হয় অথবা পরিসমাপ্তি করা হয়। নথিভুক্ত করার মানে দায়মুক্তি নয়। নতুন করে অভিযোগ উঠলে ফের অনুসন্ধান করা হবে, এটা স্বাভাবিক নিয়ম। পাশাপাশি অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। দুদক এভাবেই কাজ করে।

চলমান শুদ্ধি অভিযান নিয়ে ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুদক দুর্নীতিবিরোধী যে কোনো অভিযানকেই স্বাগত জানায়। তবে দুদক নিজস্ব নিয়মে কাজ করছে। দুর্নীতির সঙ্গে যারাই জড়িত হোক, তাদের জবাবদিহির আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, দুর্নীতিবাজদের তালিকা বড় হচ্ছে। এ পর্যন্ত ১৫৯ জনের তালিকা হয়েছে। এ তালিকা আরও লম্বা হবে। যে তালিকা এসেছে, তাতে সবাই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত কি না; সেটি এখনই বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে তদন্তের পর বলা যাবে।

তিনি আরও বলেন, চার শতাধিক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যানশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিএফআইইউ) কাছে আমরা তথ্য চেয়েছি। এ তথ্য পেলে পর্যালোচনা করে দেখা হবে।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ