প্রত্যাবসন নিয়ে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে সম্মত মিয়ানমার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৮ জুলাই ২০১৯, ০৮:৪৭ | আপডেট : ২৮ জুলাই ২০১৯, ০৮:৫২

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতে ওই সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নিতে সম্মত হয়েছে মিয়ানমারের প্রতিনিধি দল । কবে নাগাদ এটি অনুষ্ঠিত হবে তা নিশ্চিত না হলেও এ আলোচনায় বাংলাদেশ সরকার ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শন আসা মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের আলোচনায় অংশ নেওয়ার সম্মতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সেখানকার রোহিঙ্গারা এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ বিষয়ে মুখ খুলেননি মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের কেউ কিংবা বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা । তবে আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের দাবি, বিশ্ব সম্প্রদায়ের চাপের মুখেই মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের সঙ্গে প্রত্যাবসন ইস্যুতে আলোচনায় সম্মত হয়েছে।

শনিবার সকালে মিয়ানমারের পররাষ্ট্রসচিব মিন্ট থোয়ের নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল উড়োজাহাজে করে কক্সবাজার পৌঁছান। প্রতিনিধি দলটি বিমানবন্দর থেকে ইনানী হোটেল রয়েল টিউলিপে যান। সেখানে শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার, জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে অবহিত হন। বৈঠক শেষে দুপুরেরপর তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের উদ্দেশে রওনা দেন। দুপুর দেড়টা থেকে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। এ সময় রোহিঙ্গা সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর প্রতিনিধি দলটি ১২ জন নারী ও ২৮ জন পুরুষসহ ৪০ জন রোহিঙ্গা প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনা করেন।

আলোচনায় রোহিঙ্গাদেরকে নিজ দেশে ফিরে যেতে আহ্বান জানান মিয়ানমারের প্রতিনিধিরা। একই সঙ্গে ফিরে গেলে সেখানে কী কী সুযোগ সুবিধা পাবেন সে সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়। এ সময় রোহিঙ্গাদের পক্ষে নানা দাবি উত্থাপন করা হয়। দুই দিনের সফরে মিয়ানমারের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে রয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক জোট আসিয়ানের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক আহা সেন্টারের একটি প্রতিনিধি দলও।

বৈঠকে অংশ নেওয়া কয়েকজন রোহিঙ্গা জানান, প্রত্যাবাসনের নিরাপদ পরিবেশ নিয়ে মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের প্রস্তাবে রোহিঙ্গারা আশ্বস্ত হতে পারেননি। তবে বৈঠকে প্রত্যাবাসন ইস্যুতে যৌথ আলোচনায় সম্মতি জানিয়েছেন মিয়ানমারের প্রতিনিধিরা।

রোববার রোহিঙ্গা হিন্দু ক্যাম্প ও কুতুপালং এক্সটেনশন ৪ নম্বর ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে প্রতিনিধিদলের সদস্যরা গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানা গেছে। ওই সময় যৌথ আলোচনার বিষয়ে ঘোষণা আসতে পারে।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ