মাদকবিরোধী অভিযানে ফায়ারিং হয়ে থাকে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ জুন ২০১৮, ১৯:২৮ | আপডেট : ০৯ জুন ২০১৮, ১৯:৩৬

ঢাকা, ০৯ জুন, এবিনিউজ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, যেখানে মাদক আছে, সেখানেই অবৈধ অস্ত্র, অবৈধ টাকা। তাই মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানে গেলে ফায়ারিং হবেই, তবে আমরা কাউকে হত্যা করছি না।

আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ (বিআইআইএসএস) মিলনায়তনে ‘মাদকবিরোধী অভিযান ও সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গি’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় যোগ দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সারা বিশ্বেই মাদক বিরোধী অভিযানে ফায়ারিং হয়ে থাকে। আমরা কাউকে হত্যা করছি না। সেটা আমাদের উদ্দেশ্যও নয়। আমাদের পাঁচটি গোয়েন্দা সংস্থা আলাদা আলাদা তালিকা করেছে। যাদের নাম কমন পড়েছে, তাদের কাছে যাচ্ছে আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। যদি কাউকে হত্যা করা হয় তবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা কাউকে হত্যা করছি না। আমাদের দেশ, তরুণ ও যুব সমাজকে বাঁচাতে আমরা মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছি। যেকোনো মূল্যে এই যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতে হবে।

মাদকবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ এই অভিযানকে স্বাগত জানিয়েছে। তারা অভিযান অব্যাহত রাখার জন্য অনুরোধ করছেন।’

একরাম হত্যা সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে। একরাম নির্দোষ হলে দায়ী ব্যক্তিরা শাস্তি পাবেন।

চলমান অভিযান সম্পর্কে মন্ত্রী আরও বলেন, আমরা অলআউট যুদ্ধে গেছি। এ যুদ্ধে জিততে হবে। আমরা বর্ডার সিল করেছি। কোস্টগার্ডকে শক্তিশালী করছি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সক্ষমতা বাড়াচ্ছি, অপরাধীদের বিচারের সম্মুখীন করছি। আমরা বলেছি, কাউকে মাদকের ব্যবসা করতে দেবো না।

অভিযান সম্পর্কে সমালোচনার জবাবে তিনি বলেন, আমাদের কারাগারের ধারণক্ষমতা ৩৫ হাজার। সেখানে বর্তমানে আছে ৮৬ হাজার ৩৬৯ জন। এর ৪৪ ভাগই মাদক মামলার আসামি। আমরা প্রকৃত দোষীদের ধরতে আইন সংশোধন করছি।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালক জামাল উদ্দীন আহমেদ গোলটেবিল সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনা করেন জিল্লুর রহমান।

 

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food