বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে জিল্লুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ মার্চ ২০১৯, ১৬:৪১ | আপডেট : ২০ মার্চ ২০১৯, ১৭:০৯

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ সংগঠনের গুলশানস্থ কার্যালয়ে স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি, খ্যাতিমান অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী’র সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা সৈয়দ হাসান ইমাম, কার্যকরী সভাপতি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান, সহ সভাপতি চিত্রনায়িকা রোজিনা, রোকেয়া প্রাচী, সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, জোটের কেন্দ্রীয় নেতা ও স্বাধীনতা বাংলা বেতার কেন্দ্রের কন্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, কন্ঠশিল্পী দিনাত জাহান মুন্নী, কন্ঠশিল্পী এস.ডি রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক জেনিফা ফেরদৌস, অভিনেত্রী তারিন, চলচ্চিত্র বিষয়ক সম্পাদক শাহনুর, মোত্তাছিম বিল্লাহ, বৃষ্টি রানী সরকার, মাধবী সরকার, হাবিবুল্লাহ রিপন, দিলীপ সরকার প্রমুখ।

সারাহ বেগম কবরী বলেন, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বটবৃক্ষ স্বরূপ। তিনি আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে শক্ত হাতে হাল ধরে দলকে ঐক্যবদ্ধ রেখেছিলেন। তিনি ছিলেন একজন আপাদমস্তক রাজনীতিবিদ, গণতান্ত্রিক, নিরহংকার ভদ্রলোক এবং যোগ্য সংগঠক। তাঁর শূন্যতা পূরণ হতে জাতিকে অনেক দিন অপেক্ষা করতে হবে। একটি নির্দিষ্ট দলের রাজনীতি করলেও সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা অর্জন করেছিলেন প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান।

তিনি আরো বলেন, রাজনীতিবিদদের খুব একটা ভালো চোখে দেখা হয় না। গুটিকয়েকজন ছাড়া। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের ক্ষেত্রে মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদন দেখেই দেখা যায় তিনি কতোটা ভালো ছিলেন। আমাদের মাঝে আতœকেন্দ্রিকতা রয়েছে, তাই আমরা সাধারণ মানুষ। কিন্তু তিনি ছিলেন সবার জন্য। তিনি হাসি মুখে যে কোনো সমস্যার সমাধান করতে চাইতেন।

তিনি আরো বলেন, এই মহান মানুষটি আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবক থেকে রাজনীতি করে রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন। তিনি তার রাজনীতির মাধ্যমে দলকে ঐক্যবদ্ধ করে দেশের গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করেছেন।


এবিএন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food