অফিসে নিজেকে যেভাবে পরিচালনা করবেন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ জুন ২০১৮, ১০:৩৮

ঢাকা, ২৩ জুন, এবিনিউজ : চাকরিজীবীরা যে সময়টায় অফিসে থাকেন সে সময়ে কাজের মধ্যেই নিয়োজিত থাকেন। আবার অনেক সময় কাজ কম থাকে। কাজের চাপ না থাকলে অনেকেই বিভিন্ন ব্যক্তিগত কাজে নিয়োজিত থাকেন।  বেশিরভাগকেই দেখা যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেকে জড়িয়ে ফেললে তা বদঅভ্যাকে পরিণত হতে পারে, তাই বদঅভ্যাসকে পরিহার করার পাশাপাশি কয়েকটি বিষয় মেনে চলতে পারেন। 
 
* একটানা দীর্ঘক্ষণ কাজ করার ফলে ক্লান্তি আসতে পারে। কর্মক্ষেত্রে ক্লান্তি দূর করার জন্য কিছুক্ষণ পর পর হাত-মুখ ধুয়ে আসতে পারেন। লাঞ্চ বা ডিনারে অনেক বেশি করে ভাত খাবেন আর সারাদিন তেমন কিছু খাবেন না, এ অভ্যাস বাদ দিয়ে কাজের ফাঁকে ফাঁকে সারাদিনই অল্প অল্প করে স্বাস্থ্যকর কিছু খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন। কাজের ফাঁকে ফাঁকে পানি খাওয়ার অভ্যাস করুন। শরীর অনেকটা সতেজ থাকবে। 

* লোকজনের সঙ্গে কথা বলার সময় তার মুখের একেবারে কাছে গিয়ে কথা বলবেন না। নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে কথা বলুন।

* কর্মক্ষেত্রে মোবাইল ফোন সাইলেন্ট বা ভাইব্রেট মুডে রাখুন। কর্মক্ষেত্রে মোবাইলে ব্যক্তিগত কথা বলা থেকে যতটা সম্ভব বিরত থাকুন। 

* দরকারি কথা কাজের ফাঁকেই সেরে ফেলুন। অফিসের পিসিতে ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেও অফিস টাইমে ফেসবুক ব্যবহার, ইন্টারনেটে চ্যাটিং ইত্যাদি না করাই উচিত। 

* অফিসে অযথা উচ্চস্বরে বা শব্দ করে হাসতে হাসতে কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। এতে অফিসের পরিবেশ নষ্ট হয়, আপনার ব্যক্তিত্বের প্রতিও সহকর্মীদের ধারণা খারাপ হয়। 

* কর্মক্ষেত্রে এবং কর্মক্ষেত্রের পোশাক পরিহিত অবস্থায় চলার পথে সহকর্মী ও অপরিচিতদের সঙ্গে সবসময় ভদ্র ও মার্জিতভাবে কথা বলুন। 

* কারো কথা শুনে না বুঝেই হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে যাবেন না। নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করুন। সে কী বললো তা ভেবে দেখুন এবং তার সঙ্গে সংযতভাবে আলাপ করুন। 

* অফিসের পোশাক পরে বাইরে চলাফেরার সময় অপরিচিত লোকদের সঙ্গে অযথা কথা বলতে না যাওয়াই ভালো। কর্মক্ষেত্রে তো নয়ই, বরং অফিসিয়াল ড্রেস পরিধান করে কর্মক্ষেত্রের বাইরেও সিগারেট বা যে কোনো ধরনের নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন করবেন না। আশপাশের মানুষের কাছে অন্যের নামে বদনাম করার অভ্যাস ত্যাগ করুন। এতে আপনার ওপরেই সবার ধারণা খারাপ হবে।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ